ঢাকা, রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ছেলেরা ‘ক্রাশ’ খাওয়ায় খুশি জাহানারা!

ক্রিকেটার জাহানারা করোনা ভাইরাসের কারণে এবার ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে গেছে। এ ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে অনেকেই প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারেননি। এমন পরিস্থিতিতে এবার ঈদে বাড়ি যাওয়া হয়নি বাংলাদেশ নারী ক্রিকেটার জাহানারা আলমের। তাই ঈদের সন্ধ্যায় ফেসবুক লাইভে এসে ভক্তদের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটিয়েছেন তিনি। সেখানে ব্যক্তিগত নানা বিষয়ে কথা বললেন এই পেসার।

ঘরবন্দী এই ঈদে জাহানারা কী কী রান্না করেছেন, সেটি জানিয়েছেন তার ভক্তদের। ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন ‘ রবিবার পুরোটা দিন রান্না করেছি। বিরিয়ানি, জর্দা, লাচ্ছা সেমাই, জর্দা, চটপটি, রোস্ট, ডিমের কোরমা…ঈদের দিন ( সোমবার) রেঁধেছি শুধু গরুর মাংস। সকালে জম্পেশ খাওয়াদাওয়া করেছি। একদিনই তো ইচ্ছেমতো খাব। আবার (ক্রিকেটীয়) কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। এভাবেই এবার আমার ঈদ গেল।’

ফেসবুকে লাইভ আড্ডা দেয়ার সময় মন্তব্যের ঘরে এক ভক্ত যখন জাহানারা কে বললেন, ‘লাভ ইউ মাই ক্রাশ!’ উত্তরে জাহানারা বললেন, ‘আপনাকে ধন্যবাদ। এরপর টাইগ্রেস এই পেসার বলেন, আমার আসলে ধারণা ছিল না যে মেয়েরা ছেলেদের ক্রাশ হতে পারে, বিশেষ করে নারী ক্রীড়াবিদেরা। আমরা সাধারণত দেখি মেয়েরা ছেলে খেলোয়াড়দের ক্রাশ মনে করে। যারা নায়ক-নায়িকা, তাদের ওপর আমরা ক্রাশ খাই। যাহোক অবশ্যই এটা আমার অনেক বড় প্রাপ্তি। আমি সন্তুষ্ট।

এছাড়া পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে না পেরে জাহানারার একটু মন খারাপ। তবে তিনি সুস্থ আছেন, এতেই ইতিবাচক দিক খুঁজে নিচ্ছেন। তিনি বলেন, এটা হয়তো আমার দুর্ভাগ্য, পরিবার থেকে দূরে আছি। ঈদ করছি একা একা। পরিবারের সঙ্গে ৪-৫টা ঈদ করতে পারিনি আগে। তবে সবই খেলার কারণে। সতীর্থদের সঙ্গে ঈদ কেটেছে তখন। তবে এবার ঈদটা ভিন্ন। আমি সুস্থ আছি, এটাই বড় ব্যাপার। সুস্থ থাকলে সামনে পরিবার-বন্ধুদের সঙ্গে ঈদ করা যাবে।


error: Content is protected !!