আজ বুধবার| ১২ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ| ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ বুধবার | ১২ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সরিষাবাড়ীতে কমছে পানি\ত্রান বিতরন অব্যাহত\২ হাজার হেক্টর ফসলের ক্ষতি

শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০ | ১০:০০ অপরাহ্ণ | 52 বার

সরিষাবাড়ীতে কমছে পানিত্রান বিতরন অব্যাহত২ হাজার হেক্টর ফসলের ক্ষতি

মোস্তাক আহমেদ মনির, সরিষাবাড়ী ( জামালপুর) থেকে: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে কমতে শুরু করেছে যমুনার পানি। বাড়ছে দুর্ভোগ । দেখা দিয়েছে গো খাদ্য সংকট। বন্যায় উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের চরাঞ্চল ও পৌর এলাকায় বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে প্রায় ২০ হাজার পরিবারের লক্ষাধিক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। দেড় শতাধিক গবাদি পশুর প্রাণহানি ঘটেছে। পানির নিচে তলিয়ে গেছে ২ হাজার হেক্টর বীজতলা ফসলি জমি। পানি কমতে শুরু করলেও শনিবার দুপুর পযন্ত যমুনা নদীর পানি বাহাদুরাবাদ পয়েন্টের বিপদসীমার ৫৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মুরাদ হাসান এমপির নির্দেশে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোর মাঝে ইতিমধ্যে নগদ টাকা, ঢেউটিন, চাল ও শুকনো খাবার বিতরন করা হয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা যায়, পানিতে নিমজ্জিত হয়ে গেছে পাট, আউশ ধান, বোরো ধান, ভুট্টা, তীল, সবজি খেত, বীজতলা ও গোচারণ ভূমিসহ ২ হাজার হেক্টর ফসলী জমি। বীজতলা ফসলি জমি ২ হাজার হেক্টর যাহাতে আমন বীজ তলা ৪৫, আউশ ৭০, পাট ১৬৫০, শাক সবজি ৯০, তীল ২৫, ভূট্টা ৪০, আখ ১০ হেক্টর পানিতে তলিয়ে গেছে।

এদিকে বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে পানিবন্দি পরিবারগুলো শিশু, বৃদ্ধ ও গবাদি পশুপাখি নিয়ে পড়েছেন চরম বিপাকে। বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে পড়ায় তাদের মধ্যে বিশুদ্ধ পানি, জ্বালানি সংকট দেখা দিচ্ছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার জন্য সরকারি সহায়তা হিসেবে ২৩ টন চাল ও নগদ ৩৯ হাজার টাকা এসেছে । আমরা স্থানীয় সংসদ সদস্য ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মুরাদ হাসান এমপির নির্দেশে ইতিমধ্যে বিভিন্ন ইউনিয়নের বন্যা কবলিত মানুষের বাড়ী-বাড়ী গিয়ে ত্রান বিতরন করা হয়েছে এবং ত্রান বিতরনের কাজ চলমান আছে। এ উপজেলার বন্যা কবলিত প্রতিটি পরিবারের মাঝে পানি না কমা পর্যন্ত ও পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ ত্রান বিতরন অব্যাহত থাকবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল্ল­াহ আল মামুন বলেন, চলতি বন্যায় উপজেলায় প্রায় ২ হাজার হেক্টর বীজতলা ফসলি জমি বন্যার পানিতে তলিয়ে নষ্ট হয়ে গেছে। পানি এভাবে বৃদ্ধি পেলে আরো বেশি ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকেরা সরকারী ভাবে ভতুর্কি পাবে।

শেয়ার করুন-Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print

সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা

error: Content is protected !!