ঢাকা, বুধবার, ১২ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ১২ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কেশবপুরে সু-সাহিত্যিক মনোজ বসুর জন্ম বার্ষিকী পালিত

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) থেকে: যশোরের কেশবপুর উপজেলার গড়ভাঙ্গায় সু-সাহিত্যিক মনোজ বসুর জন্ম বার্ষিকী পালিত হয়েছে । জন্মবার্ষিকী উদযাপন পরিষদের আহবায়ক নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম রুহুল আমিন, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইয়ার মাহমুদ, কবি ও সাহিত্যিক হাসেম আলী ফকির প্রমুখ।

এসময় অতিথিরা মনোজ বসু সাহিত্যকর্ম সম্পর্কে স্মৃতিচারণ করে বলেন, মনোজ বসু (১৯০১-১৯৮৭) বিংশ শতকের বিশিষ্ট বাঙালি কথাসাহিত্যিক। মনোজ বসু ১৯০১ সালের ২৫ জুলাই যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলা ডোঙ্গাঘাট গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। ১৯১৯ সালে কলকাতার রিপন কলেজিয়েট স্কুলে পড়াশোনা করে প্রথম বিভাগে এন্ট্রান্স পাস করেন। এরপর খুলনার বাগেরহাট কলেজে ভর্তি হন। এখানে পড়ার সময়ই তিনি বিপ্লবী দল যুগান্তরের সংস্পর্শে আসেন এবং স্বদেশি আন্দোলনে যোগ দেন। কলকাতার ভবানীপুরে সাউথ সুবারবন স্কুলে শিক্ষকতা দিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন মনোজ বসু। দীর্ঘদিন এখানে শিক্ষকতার পাশাপাশি পাঠ্যপুস্তক রচনায় মনোনিবেশ করেন।

প্রতিষ্ঠা করেন নিজের প্রকাশনা সংস্থা ‘বেঙ্গল পাবলিশার্স’। পরে সাহিত্যের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে শিক্ষকতা পেশা পরিত্যাগ করে ১৯৪৩ সালে মনোজ রচনা করেন তার সর্বাধিক জনপ্রিয় গ্রন্থ ‘ভুলি নাই’। তার রচিত একাধিক উপন্যাস ও গল্প হিন্দি, ইংরেজি, গুজরাটি, মারাঠা ও মালয়ালাম ভাষায় অনূদিত হয়েছে এবং বেশ কয়েকটি উপন্যাসের চলচ্চিত্রায়ণও হয়েছে। মনোজ বসু পশ্চিমবঙ্গ বাংলা একাডেমির সভাপতি মন্ডলির অন্যতম সদস্য ছিলেন। ভারতের বহু সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংস্থার পৌরহিত্য করেছেন।

জনপ্রিয় এই সাহিত্যিক ১৯৮৭ সালের ২৬ ডিসেম্বর কলকাতায় মৃত্যু বরন করেন।


error: Content is protected !!