ঢাকা, বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বন্যায় প্লাবিত হয়ে শরীয়তপুর-ঢাকা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: প্রতিদিন এই প্লাবিত হচ্ছে শরীয়তপুরের বিভিন্ন এলাকা পানিবন্দি প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ। বন্যার পানিতে শরীয়তপুর ঢাকা মহাসড়ক প্লাবিত হয়ে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে এই রুটে যাতায়াতকারী যাত্রী সহ সাধারন মানুষ। আজও শরীয়তপুরে পদ্মার পানি বিপদসীমার ৪০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানিবন্দি এসব মানুষের ভোগান্তির যেন শেষ নেই।

ঢাকা-শরীয়তপুর মহাসড়কের ১২টি স্থান বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। পানির তোড়ে তিনটি স্থান ভেঙে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। গত পাঁচ দিন যাবত ঢাকা-শরীয়তপুর মহাসড়কে জেলার ও দূরপাল্লার বাস, ট্রাকসহ সকল ধরনের যান বন্ধ রয়েছে। এছাড়া নড়িয়া ও জাজিরার অধিকাংশ গ্রামীণ সড়ক পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

আন্তঃজেলা বাস ও মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক চৌকিদার বলেন, ঢাকা-শরীয়তপুর মহাসড়ক পানিতে তলিয়ে ও ভেঙে যাওয়ায় গত পাঁচ দিন যাবত বাস বন্ধ রয়েছে। বন্যার কারণে জেলার অন্যান্য সড়কেও বাস চলাচল বন্ধ। সামনে ঈদ, ঈদের ছুটিতে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষ শরীয়তপুরে আসবে। এ সময়টা বাস মালিক ও শ্রমিকদের ইনকামের সময়। বন্যার কারণে বাস বন্ধ থাকায় এক হাজার ৫০০ বাস শ্রমিক কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। শ্রমিকদের সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রী দেয়ার ব্যবস্থা করা উচিত।

শনিবার (২৫ জুলাই) বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-শরীয়তপুর মহাসড়কের গাগ্রীজোড়া, ডোমসার মোড়, কাজিকান্দি, ঢালিকান্দি, মাঝিরহাট বাজার, পোড়াকান্দি, ডগ্রী বাজার, নশাসন, জামতলাসহ ১৩ স্থানে পানি উঠেছে। পানির তোড়ে পোড়াকান্দি, জামতলা ও নশাসন এলাকা গভীরভাবে ভেঙে গেছে।


error: Content is protected !!