ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোয়াখালীতে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ

নোয়াখালীর গৃহবধূ নির্যাতনের খবরে সারাদেশে চলছে প্রতিবাদ নিন্দা ঘৃণার ঝড় ঠিক তখনই নোয়াখালীতেই এবার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
নোয়াখালী সদর উপজেলার এওজবালিয়া ইউনিয়নের পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামের মৃত জহির উদ্দিনের ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণ করেছে একই গ্রামের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে জসীম উদ্দিন। এ ঘটনায় আজ (বুধবার) বিকেলে সুধারাম মডেল থানায় নির্যাতিত ওই কিশোরী নিজেই অভিযোগ দায়ের করেন।মামলার এজাহারে জানা যায়, পূর্ব এওজবালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে একই গ্রামের পার্শ্ববর্তী বাড়ির মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে জসীম উদ্দিন (২২) ওই কিশোরীকে প্রেম নিবেদন করতো, কিশোরী তাতে সম্মত না হওয়ায় জসীম হুমকি ধমকি দিতো এবং তাকে বিয়ে করবে এমন আশ্বাস দিয়ে এক মাস পূর্বে কিশোরীদের বাড়ির পেছনে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে।
বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক মাসে চারবার ধর্ষণ করে এবং সর্বশেষ ১৫ সেপ্টেম্বরও তাকে বিয়ে করবে বলে আশ্বাস দিয়ে ধর্ষণ করে। এখন জসীম বিয়ে করার আশ্বাস ও ধর্ষণের বিষয়ও অস্বীকার করছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
কিশোরীর মা হোসনে আরা বেগম বলেন, আমি চট্টগ্রামে থাকি। জসীম সবসময় মেয়েকে স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করতো, ভয়-ভীতি দেখাতো। স্কুল থেকে ফিরে মেয়ে কাউকে কিছু বলতো না। গতকাল আমি চট্টগ্রাম থেকে আসার পর রাতে আমার মেয়েকে বাইরে নেবার জন্য জসীম আসে। এসময় সব কথা মেয়ে আমাকে খুলে বলে। ওই ছেলে এখন বিয়ে করবে না বলে জানায়। আমি এলাকাবাসীকে বিষয়টি অবহিত করলে তারা থানায় মামলা করার পরামর্শ দেন।সুধারাম মডেল থানার ওসি নবীর হোসেন জানান, মামলা গ্রহণ করা হয়েছে এবং এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

error: Content is protected !!