ঢাকা, বুধবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোয়াখালীতে নির্যাতনের শিকার নারীর বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে পিবিআই

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নির্যাতনের শিকার সেই নারীর ঘর থেকে জামা-কাপড়, বালিশ, বিছনার চাদর সহ মামলার বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এছাড়াও মামলার প্রধান আসামী বাদল, ৫নং আসামী সাজু ও ৯নং আসাসী রহমত উল্যাকে আদালতে তোলা হয়েছে। এর মধ্যে প্রধান আসামী বাদল ও ৫নং আসামী ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়ার কথা রয়েছে।

রবিবার সকালে পিবিআই কর্মকর্তাগণ একলাশপুর ইউনিয়নের জয়কৃষ্ণপুর গ্রামে নির্যাতনের শিকার সেই নারীর বাড়িতে যান। এ সময় তারা ভুক্তভোগীর ঘর থেকে তার তার ব্যবহৃত জামা-কাপড়, বালিশ, বিছনার চাদর এবং কয়েকটি কার্টুন সহ মামলার বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেন। এ সময় বাড়ির পাশের খালে এবং পুকুরে আরো কিছু আলামত উদ্ধারের জন্য জাল ফেলে ও ডুবুরি নামিয়ে খোঁজাখুজি করা হয়।

পরে স্থানীয় লোকজনকে স্বাক্ষী করে আলামতগুলোর জব্দ তালিকা প্রস্তুতের পর জেলা পিবিআই কার্যায়ে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় এ ঘটনায় নির্যাতিত নারীর দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই এর জেলা কার্যালয়ের পরিদর্শক মামুনুর রশিদ পাটোয়ারি উপস্থিত ছিলেন।গত শুক্রবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশনা অনুযায়ী শিখ্রই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এবং পর্ণোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে ভুক্তভোগীর দায়ের করা দুটি মামলা পিবিআইতে স্থানান্তর করা হয়।নির্যাতনের শিকার ওই নারী বাদি হয়ে গত ৪ সেপ্টম্বর রবিবার রাতে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দুটি দায়ের করেন। দুই মামলার এজাহারে ৯ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত ৭/৮ জনকে আসামী করা হয়। দুই মামলায় এ পর্যন্ত ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর মধ্যে এজাহারভুক্ত ৬ জন এবং তদন্তে যুক্ত করা হয়েছে ৫ জন। এর মধ্যে ৫ আসামী ইতোমধ্যে ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।আজ দুপুরে মামলার প্রধান আসামী বাদল, ৫নং আসামী সাজু ও ৯নং আসাসী রহমত উল্যাকে আদালতে তোলা হয়। এর মধ্যে প্রধান আসামী বাদল ও ৫নং আসামী ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়ার কথা রয়েছে।


error: Content is protected !!