ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জাজিরায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে হুমকি দিয়ে ফেস্টুন-ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বিলাশপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মো. জুয়েল রানা উবিকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে ফেস্টুন-ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে।

 

অভিযোগটি উঠে বিলাশপুর ইউনিয়নের রহিমউদ্দিন মৃধা মলাইকান্দি (শিকদারকান্দি) গ্রামের মৃত আ: মজিদ শিকদারের ছেলে জসিম শিকদারের বিরুদ্ধে।

 

এ ঘটনায় গত ১৮ ডিসেম্বর জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ করেন বিলাশপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সুমন খান।

 

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, গত ১৭ ডিসেম্বর সকাল ১০টার দিকে জাজিরা পুরান বাজার সংলগ্ন জমাদ্দার বাড়ি চায়ের দোকানে বসা ছিল বিলাশপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মো. জুয়েল রানা উবি। হঠাৎ অভিযুক্ত জসিম শিকদার তার ৪/৫জন সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে এসে উবিকে বকাঝকা করে এবং বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়। জসিম শিকদার হুমকি দিয়ে বলে, শা… তুই উল্টাপাল্টা ব্যানার-ফেস্টুন করছস, ব্যানার ফেস্টুন করার সাধ চিরতরে মিটাইয়া দিমু, বিলাশপুর গেলে তোর হাত-পা ভেঙে দিমু। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয়। অবস্থা খারাপ দেখে স্থানীয় লোকজন দোকান থেকে উবিকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায়।

 

ব্যানার-ফেস্টুনে জসিম শিকদারের ছবি না দেয়ায়, ওইদিন রাতে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বানানো বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী, শরীয়তপুর-১ আসনের সাংসদ ও জাজিরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সম্বলিত টানানো ব্যানার ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলে জসিম ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা। পরে উবিকে মোবাইল ফোনে হুমকি দেয় জসিম।

 

বিলাশপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সুমন খান বলেন, আমাদের কমিটি হয় গত দুই বছর আগে। ওই কমিটির সভাপতি জসিম শিকদার। এ কমিটির লোকজনের মধ্যে ভাঙ্গন ধরানোর জন্য চেস্টা করছে জসিম শিকদার। পাশাপাশি কমিটিতে ভালো পদ দিতে টাকাও নিচ্ছে বিভিন্ন লোকজনদের কাছ থেকে। শুধু তাই নয় এলাকায় চাঁদাবাজি করছেন তিনি।

 

গত ১৭ ডিসেম্বর কমিটির সহসভাপতি জুয়েল রানা উবিকে হুমকি দেয়। পরে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বানানো বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী, শরীয়তপুর-১ আসনের সাংসদ ও জাজিরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সম্বলিত টানানো প্রচায় ৫০টি ব্যানার ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলে। উবিকে মোবাইল ফোনেও হুমকি দেয় জসিম। তাই আমি থানায় অভিযোগ করেছি।

 

এ ব্যাপারে জসিম শিকদারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

জাজিরা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মহব্বত খান বলেন, জসিম শিকদার সংগঠন বর্হিভূত কাজ করেছে। এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। জসিমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

 

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার মুঠোফোনে জানান, এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ এসেছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


error: Content is protected !!