ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হলুদের সমাহার আড়িয়াল বিল

অধীর রাজবংশী: বিস্তীর্ণ আড়িয়াল বিলের বুকে এক চিলতে হলুদের সমাহার। বিখ্যাত বিশাল বিলের লোকালয় সংলগ্ন বেশ কিছু টান জমিতে সরিষার চাষাবাদ করা হচ্ছে। প্রায় জমিতেই হলুদ রংয়ের সরিষা ফুলে জমিগুলো ঢাকা পরেছে। অপরূপ সুন্দর ও দৃষ্টি কারা দৃশ্য যে কারও মনের আনন্দে ঢেউ খেলবেই। এই বিলে বোরো ধানের আবাদই বেশী হয়।

 

 

ইতিমধ্যে কৃষকরা ধানের চারা রোপণ কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে। বিলের কোথাও কোথাও লোকালয়ের কাছাকাছি ফুলে ফুলে ভরা সরিষার জমিগুলো দৃষ্টি করছে অপরূপ সৌন্দর্যের হাতছানিতে। এমনটাই লক্ষ্য করা গেছে, মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালীর আড়িয়াল বিল এলাকায় হলুদের সমাহার।

 

 

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড়ৈখালীর শ্রীধরপুরে আড়িয়াল বিল এলাকার বেশ কিছু টান জমিতে মাঘি সরিষার চাষ করা হচ্ছে। প্রায় জমিই সরিষা ফুলে ঢাকা পরেছে। কোনও কোনও জমিতে সরিষা গাছে ফুল আসার অপেক্ষায় আছে। লক্ষ্য করা যায়, সরিষা ফুলে ফুলে মৌ-মাছিরা মধু আহরণে ছোঁটাছুটি করছে। সরিষা ফুলের মৌ-মৌ গন্ধে মনে দোলা দিচ্ছে।

 

 

এমন মনকারা মনোরম দৃশ্য দেখতে পাওয়াটা শুধু গ্রামীন এসব পরিবেশেই সম্ভব। তার মধ্যে আড়িয়াল বিলের শ্রীনগর অংশে শ্রীধরপুর এলাকায় এমন হলুদের রাজ্য লক্ষ্য করা গেছে। এসময় দেখা যায়, কৃষক সরিষার জমিতে পানি সেচে ব্যস্ত সময় পার করছেন। গাজী বাহার নামে ওই কৃষক বলেন, প্রায় এক কানি (১৪০ শতাংশ) জমিতে মাঘি সরিষার চাষ করছেন। মাঘ মাসের শেষের দিকে সরিষা কাটা হবে।

 

 

বিভিন্ন সমস্যার কারণে সরিষা চাষে মানুষের আগ্রহ কমছে। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, জমিতে জলাবদ্ধতা, অসময়ে বৃষ্টি এছাড়াও কৃষি উপকরণের দাম উর্ধ্বগতীর, কৃষি শ্রমিকের মজুরি ইত্যাদি সব খরচ বাদে সরিষা চাষে তেমন লাভ হয়না। প্রতি মন সরিষা বর্তমান বাজার দর প্রায় ১৬০০-২০০০ টাকা বলেন তিনি। এ সময় কয়েকজন তরুণকে মোবাইল ফোনে ছবি তোলতে দেখা যায়। তারা জানায়, শীতের বিকালে এলাকায় ঘুরতে এসে সরিষা ফুলের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করছেন তারা। তারা বলেন, অনেকেই আসেন এখানে। বন্ধু বান্ধবরা মিলে মিশে ছবি তুলেন।

 

 

কিছুক্ষনের জন্য আনন্দ করে সময় পার করেন। খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, শ্রীনগরে গত বছর ৩৫০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন প্রকার সরিষার চাষ করা হয়। সেই হিসাব অনুযায়ী এবছর উপজেলায় সরিষার চাষ অনেকাংশে কমেছে।

 

 

উপজেলার বীরতার, ছয়গাঁও, সাতগাঁও, সিংপাড়া এলাকায় সরিষা চাষ বেশী হলেও এবছর নানা প্রতিকুলতার কারণে সরিষার আবাদির জমির পরিমান কমেছে। এসব এলাকায় সরিষার আবাদ কমায় সরিষার জমিতে মধু চাষীদের উপস্থিতি কোথাও লক্ষ্য করা যায়নি। শ্রীনগর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় মোট ২৭০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষাবাদ করা হচ্ছে। এর মধ্যে প্রর্দশনী রয়েছে ৫০টি।


error: Content is protected !!