ঢাকা, শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন নড়িয়া পৌরসভার নৌকা প্রার্থী এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ

আজ ৩১ ডিসেম্বর বেলা ১২টায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে উপজেলা রির্টানিং কর্মকর্তার নিকট মনোনয়ন পত্র জমা দেন। তার আগে একটি মিছিল নিয়ে নড়িয়া বাজার প্রদক্ষিত করেন। মনোনয়নপত্র জমা শেষে নড়িয়া কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে উপস্থিত হয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন।এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ বক্তব্যে বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম ভাই আমার উপর আস্থা রেখে নৌকা মার্কা দিয়েছেন। আমি নড়িয়ার সকল নেতাকর্মী ও জনগণকে নিয়ে এ আস্থার প্রতিদান দিতে চাই। নড়িয়া পৌরসভাকে ১ম শ্রেণী ও আধুনিক হিসেবে গড়ে জনগণের দুভোর্গ লাঘব করবো ইনশাআল্লাহ।

এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ দীর্ঘ সময় ধরে রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছেন। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় আশির দশকে স্বৈারাচার বিরোধী আন্দোলনে ঢাকার রাজপথে ছিলেন সামনের সারিতে। ছিলেন সরকারি কবি নজরুল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। সে সময় ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে কলেজ সংসদ জি.এস নির্বাচন হন। পরবর্তীতে ১৯৮৫ সালে কাদের-চুন্নু পরিষদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যের দায়িত্ব পালন করেন। প্রয়াত আওয়ামীগের নেতা আব্দুল রাজ্জাক, তোফায়েল আহমেদ, কর্ণেল (অবঃ) শওকত আলীর উপস্থিতিতে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে গেরিলা উপাধিতে ভূষিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে শরীয়তপুরের রাজনীতিতেও এক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব হয়ে ওঠেন। বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

 

শরীয়তপুরের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে অসামান্য অবদান রয়েছে তার। গত কয়েক বছর আগে পদ্মায় ভাঙ্গনে যখন বিপর্যস্ত শরীয়তপুরের নড়িয়ার মানুষ, তখন আশার আলো হয়ে অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। পদ্মার ভাঙ্গনে নিজের ভিটে মাটি বিলীন হলেও, বেরীবাঁধ স্থাপনের দাবীতে ছিলেন সবর। সে সময় পদ্মা নদীর ডান তীর রক্ষা কমিটি গঠন করে আহবায়ক এর দায়িত্ব পালন করেন।

 

সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের পাশাপাশি বেরীবাঁধ বাস্তবায়নের দাবীতে বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছেন সামনে থেকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম এমপি. এর আন্তরিক প্রচেষ্টায় পদ্মার ডান তীর জুড়ে নড়িয়ার মানুষের স্বপ্নের বেরীবাঁধ আজ বাস্তবায়িত হচ্ছে। বেরীবাধঁ বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কারণে নড়িয়ার গণমানুষের হ্নদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন।

 

একজন সফল আইনজীবী হিসেবে শরীয়তপুর জেলা জুড়ে সুনাম রয়েছে তার। আইন পেশার মাধ্যমে সমাজে ন্যায় প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাচ্ছেন অনবরত। এছাড়া শরীয়তপুর জেলা আইনজীবি সমিতির দুইবারের সফল সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।


error: Content is protected !!