ঢাকা, বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী এদেশের সার্বিক উন্নয়নে যে ভাবনা ভাবেন তা বিশ্বের অনেক বড় বড় নেতাদের মাথায় আসতে ১০ বছর সময় লাগে: যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এদেশের মানুষের কল্যাণে ও উন্নয়নে যে ভাবনা ভাবেন, তা বিশ্বের অনেক বড় বড় নেতাদের মাথায় আসতে সময় লাগে অন্তত ১০ বছর। বঙ্গবন্ধুর কন্যার চিন্তা ও চেতনার ফলে বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বে পরিনত হওয়ার জন্য উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলছে। তিনি ১৪ মার্চ রোববার দুপুরে শরীয়তপুর প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনের আম্রকাননে শরীয়তপুর জেলা যুব উদ্যোক্তা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে সরকার গঠনের সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কথা বলেছিলেন। তখন বিশ্বের অনেক বড় বড় দেশসহ আমাদের দেশের মানুষও এ নিয়ে হাসি তামাশা করেছিলেন। অথচ তারও ১০ বছর পরে ২০১৮ সালে বাংলাদেশের অনুকরণে বিশ্বের অন্যতম বৃহত দেশ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ডিজিটাল ইন্ডিয়া বাস্তবায়নের ঘোষণা দেন। এ থেকেই প্রমান হয় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী কতটা দুরদর্শী। মন্ত্রী শরীয়তপুরের ৬ উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ সহ জেলার যুব ও ক্রীড়ার উন্নয়নে বেশ কিছু প্রকল্প বাস্তবায়নের বরাদ্দ দেয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন আমরা শরীয়তপুরের এ সম্মেলনকে মডেল ধরে যাত্রা শুরু করলাম। পর্যক্রমে দেশের প্রতিটি জেলায় এ ধরনের সম্মেলন করে যুব উদ্যোক্তাদের সমন্ধয় চাকুরি প্রার্থীনয় চাকুরি দাতা তৈরী করা হবে।

শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মো. পারভেজ হাসানের সভাপতিত্বে যুব সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নির্বাহী কমিটির সদস্য ও শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, শরীয়তপুর-৩ আসনের সংদস্য নাহিম রাজ্জাক, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আখতার হোসেন, যুব উন্নয়ন মহাপড়িচালক ও অতিরিক্ত সচিব আজহারুল ইসলাম খান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা শিকদার, পুলিশ সুপার এস.এম. আশরাফুজ্জামান, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র পারভেজ রহমান, ভেদেরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল বাশার চোকদার, ডামুড্ডা পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম রাজা ছৈয়াল।  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম হাসানের সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ফোর্থ আইআর এ্যাগ্রো ফিসারিজের পরিচালক আহমেদ বারি।

সম্মেলন স্থলে শরীয়তপুর ৬ উপজেলার উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ৬টি প্যাভিলিয়ন ছাড়াও জাতীয় পর্যায়ের উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে ১টি সহ মোট ৭টি প্যাভিলিয়নে তাদের উৎপাদিত পন্য সামগ্রী প্রদর্শণ করা হয়। আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ বিভিন্ন প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন ও উদ্যোক্তাদের সাথে মত বিনিময় করেন। সভা শুরুর পূর্বে নেতৃবৃন্দ ও অতিথিবর্গ স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ যুব সম্মেলনের পক্ষ থেকে স্বাধিনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর পরে আয়োজকদের পক্ষ থেকে স্বাগত সংগীতের মাধ্যমে অতিথিদের মঞ্চে আহবান করা হয়। পরে প্রতিমন্ত্রী ল্যান্স নায়ক মুন্সী আব্দুর রব স্টেডিয়ামের উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।


error: Content is protected !!