ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জাজিরা থেকে লুণ্ঠিত মালামাল সহ চার ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় চার ডাকাতকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। গত ১৮ মার্চ (বৃহস্পতিবার) উপজেলার বিকেনগর আনন্দ বাজার থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া ডাকাতির লুন্ঠিত মালামাল জব্দ করেছে পুলিশ।

 

এ ঘটনায় শনিবার (২০ মার্চ) বিকেলে জেলা পুলিশ “শরীয়তপুর পুলিশ মিডিয়া সেল” এক প্রেস বার্তা দিয়েছে।

 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জাজিরা উপজেলার বিকেনগর টুমচর সরদার কান্দি গ্রামের ইদ্রিস সরদারের ছেলে কালাচাঁন সরদার (৩৫), বিকেনগর সদর আলী মাদবর কান্দি গ্রামের মৃত ওহাব মাদবর ছেলে বাবুল মাদরব (৪৫), বিকেনগর মুন্সী কান্দি গ্রামের জনু ফকিরের ছেলে বাহাদুর ফকির (৩৮) ও বড়কৃষ্ণ নগর নমসুদ্র কান্দি গ্রামের বিরেশ্বর বাইনের ছেলে বিষ্ণু বাইন (৩৪)।

 

প্রেস বার্তায় জানানো হয়, গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে জাজিরা উপজেলার বিকেনগর টুমচর সরদার কান্দি গ্রামের সাহেব আলী সরদারের বাড়ীতে ১৪/১৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিল্ডিংয়ের কেচিগেট ও কাঠের দরজা ভেঙ্গে রুমে প্রবেশ করে। সাহেব আলী সরদার ও তাহার পরিবারের লোকদেরকে মারপিট করে। পরে অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে ৭ ভরি স্বর্নালংকার, নগদ ৭০ হাজার টাকা, তিনটি মোবাইল, একটি ঘড়ি, একটি টর্চ লাইট ডাকাতি করে নিয়ে যায়। যাহার মূল্য ৭ লাখ ৫৪ হাজার টাকা।

 

২১ ফেব্রুয়ারি সাহেব আলী সরদার বাদি হয়ে জাজিরা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তভার ডিবি পুলিশকে দেয়া হয়।

 

পরে ১৮ মার্চ নড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে শরীয়তপুর ডিবির ওসি সাইফুল আলম, তদন্তকারী অফিসার এসআই শেখ আশরাফুলসহ ডিবির অফিসার ফোর্সের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে কালাচান, বাবুল, বাহাদুর ও বিষ্ণুকে গ্রেফতার করে। ডাকাতদের কাছ থেকে একটি স্বর্নের চেইন, দুটি আংটি, এক জোড়া কানের দুল ও স্বর্ন বিক্রির নগদ ২৮ হাজার উদ্ধার করা হয়। ডাকাতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

ডাকাত কালাচান ও বাহাদুর নিজেরা ঘটনার সাথে জড়িত বলে, আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার লুন্ঠিত মালামাল ও ঘটনায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।


error: Content is protected !!