ঢাকা, বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শরীয়তপুরে ফুটপাতের দোকানগুলোতে বেড়েছে ক্রেতাদের ভিড়

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: এই করোনা মহামারীর মধ্যে নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষের ভরসা ফুটপাতের দোকান গুলোতে। আজ ২১ রমজান। ঈদুল ফিতরের বাকি আর নয় দিন। শেষ মুহূর্তে ঈদের কেনাকাটা জমে উঠেছে। এবারের ঈদ কেনাকাটায় এগিয়ে আছে ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা। বিশেষ করে স্বল্প আয়ের মানুষের প্রধান ভরসা হিসেবে দেখা দিয়েছে শরীয়তপুর পালং ফুতপাতের বাজার। ঈদকে সামনে রেখে করোনার মধ্যে চলছে ফুটপাতের কেনাকাটা।

এদিকে, করোনা ভাইরাস নামে ভাইরাস আছে বলে ক্রেতা-বিক্রেতাদের জানা নেই। নেই স্বাস্থ্যবিধি, নেই অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক। লকডাইনের মধ্যে চলছে কেনাকাটার ধুম।

 

 

শার্ট ও প্যান্টের পসরা সাজিয়ে বসেছেন মুজাম্মেল হক মোল্লা নামে এক ফুটপাত ব্যাবসায়ী। তিনি জানান, বিক্রি ভালোই হচ্ছে। সকাল থেকেই ক্রেতা সমাগম শুরু হয়েছে। দুপুরে বেচা বিক্রি কম হয়। তবে ভালো বিক্রি হচ্ছে।

ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা দম ফেলার সুযোগ পাচ্ছেন না। ঈদের দিন যতোই এগিয়ে আসছে বিক্রিও ততোই বাড়ছে তাদের। শরীয়তপুর শহরের জুতার দোকান, গয়নার দোকান, পাঞ্জাবি দোকান, কাপড়ের দোকান ও বিপণি-বিতানগুলোতে লেগে আছে ঈদের ভিড়।

 

 

মঙ্গলবার দুপুরে পালং ইউনিয়নের কুরাশি থেকে এসেছেন হাসি। তিনি বলেন, সস্তা মনে হলো, তাই ভাগনির জন্য জামা প্যান্ট কিনলাম। আমরা মধ্যবৃত্ত তাই ফুটপাতের দোকান ভরসা।

 

 

শরীয়তপুর সদরের ডোমসার থেকে এসেছেন আমির হোসেন। তিনি বলেন, দুই ছেলে এক মেয়ে আমার। আমি একজন কৃষক। সামনে ঈদ তাই সন্তানদের জন্য জামা, প্যান্ট কিনতে এসেছি। গরিব তাই ফুটপাত থেকে কিনছি।


error: Content is protected !!