ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নড়িয়ায় খুনের দায়ে ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার! দল থেকে বহিষ্কার!

মোঃ ইব্রাহীম হোসাইন, শরীয়তপুর প্রতিনিধি: খুনের দায় গ্রেফতার হয়েছেন নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন গাজী। আজ (১২ সেপ্টেম্বর) রবিবার নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে তাকে দলীয়ভাবে বহিষ্কার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ।

মামলা ও জেলা ডিবি পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে, নিজ দলের সমর্থিত কর্মীকে হত্যার অভিযোগে গত পরশু ঢাকার একটি অভিজাত এলাকায় অভিযান চালিয়ে রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন গাজী সহ আরও তিনজনকে আটক করে শরীয়তপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। পরে চৌচল্লিশ ধারায় জবানবন্দি নিয়ে আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন জানান, আজ রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় নড়িয়া বাজারস্থ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এক জরুরি সভা আব্বানক করা হয়। সভায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে সন্ত্রাসী কার্যকলাপে লিপ্ত হওয়ায় গ্রেপ্তারকৃত রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন গাজী কে নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত হয়। উপস্থিত সকল নেতাকর্মীদের সিদ্ধান্ত নীতিমালা অনুযায়ী তাকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করে চূড়ান্ত বহিষ্কারের জন্য বহিষ্কার পত্র কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দপ্তরে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। কিছুদিন পূর্বে রাজনগর ইউনিয়নে একটি হত্যাকাণ্ড ঘটে। সেই হত্যাকাণ্ডে তাকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। গতকাল তিনি ডিবি পুলিশের কাছে চৌচল্লিশ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তারই প্রেক্ষিতে উপজেলা আওয়ামীলীগ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সাইফুল আলম জানান, গেল বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় রাজধানীর রায়েরবাজার এলাকা থেকে রাজনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন গাজী ও ইউপি মেম্বার জয়নাল মাদবর সহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। গেল বৃহস্পতিবার তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে, নিজ দলের সমর্থক আলমগীর মীরবহর কে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর কথা স্বীকার করে রাজনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন গাজী ও জয়নাল মেম্বার সহ অন্যরা। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের নির্দেশে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এছাড়া বাকি দুই আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

 

উল্লেখ্য: গত মাসের (২৯ আগস্ট) রোববার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের আন্দারমানিক বাজারের ব্রীজের কাছে পাকা সড়ক উপর আলমগীর মীরবহর (৩৬) নামে এক যুবককে লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ভোরে ঘটনা স্থল থেকে বোমা ও গুলিবিদ্ধ ক্ষত-বিক্ষিত অবস্থায় ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে নড়িয়া থানা পুলিশ।
নিহত আলমগীর মীরবহর রাজনগর ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের মালতকান্দি গ্রামের মৃত দলিল উদ্দিন মীরবহরের ছেলে। তিনি একজন কৃষক এবং রাজনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সমর্থিত একজন কর্মী ছিলেন।


error: Content is protected !!