ঢাকা, শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Notice: Use of undefined constant php - assumed 'php' in /home/bhorerso/public_html/wp-content/themes/newsportal/lib/part/top-part.php on line 49

খাগড়াছড়ির রামগড় ও ভারতের ত্রিপুরার সাথে স্থলবন্দর চালুর লক্ষে ডিসেম্বরে কাজ শুরু

রামগড় বন্দর এলাকা পরিদর্শনে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো: আলমগীর

এম জামান রাজ, স্টাফ রিপোর্টার , খাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ির রামগড় ও ভারতের ত্রিপুরার সাথে স্থলবন্দর চালুর লক্ষে অধিগৃহীত ভূমি পরিদর্শনে এসেছেন নৌপরিবহন মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো: আলমগীর ।

৬ই নভেম্বর ২০২১ শনিবার দুপুরে তিনি ও তার সফরসঙ্গীরা রামগড় মহামুনি এলাকায় অবস্থিত বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু সংলগ্ন প্রস্তাবিত অধিগ্রহনকৃত বন্দর এলাকা ও বন্দরের অবকাঠামো নির্মাণ স্থল এলাকা পরিদর্শনে করেন। এ সময় উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) উম্মে হাবিবা মজুমদার তাদের ফুলেল স্বাগত জানান।

পরিদর্শন কালে বাংলাদেশ স্থলবন্দর চেয়ারম্যান মোঃ আলমগীর জানান, বন্দরের জন্য নতুন করে আরো কিছু জমি অধিগ্রহণ করা হবে। এই মাসের শেষে কিংবা ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বন্দরের অধিগ্রহণকৃত জমিতে অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শুরু হবে। তিনি আরো জানান, রামগড় -সাব্রুম সীমান্তে ইমিগ্রেশন চালু করার ব্যাপারে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা চলছে। আলোচনা ফলপ্রসূ হলে পুনরায় রামগড়-সাব্রুম সীমান্তে ইমিগ্রেশন চালু হবে।

অন্যান্যদের মধ্যে যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল মজুমদার, প্রকল্প পরিচালক ও যুগ্ম সচিব সরোয়ার হোসেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হাসান আলী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ ত্রিপুরা, রামগড় উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) উম্মে হাবিবা মজুমদার, রামগড় পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র রফিকুল আলম কামাল, রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামসুজ্জামন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র ১ আহসান উল্ল্যাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায় ,স্থলবন্দর অবকাঠমোর মধ্যে সীমানা প্রাচীর ও গেইট ঘর, ওয়ান স্টপ বন্দর ভবন (চেক পোস্ট), কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসিক ভবন, শৌচাগার, শ্রমিক শেড, পর্যবেক্ষণ টাওয়ার, ট্রান্সশিপমেন্ট শেড এবং গুদাম ঘর, আরসিসি ফুটপাথ এবং স্ট্যাক ইয়ার্ডস ও পথচারীদের ওভারপাস ইত্যাদি নির্মাণ সহ জনবল নিয়োগ করা হবে। একইসাথে অভ্যন্তরীণ বিদ্যুতায়ন এবং প্রয়োজনীয় বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম স্থাপন করা হবে।


error: Content is protected !!