ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বন্যার্ত ও ক্রিকেটারদের পরিবারের পাশে বিসিবি

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। ক্রমশ পানি বেড়ে চলায় প্রায় বন্ধ যোগাযোগ ব্যবস্থা। সড়ক পথের সঙ্গে রেলপথও পানির নিচে ডুবে গেছে। বন্ধ আছে বিমান উঠানামা। টানা বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলে বিপর্যস্ত সিলেটে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সিলেট বিভাগের কয়েকটি জেলার চিত্র প্রায় একই। এই দুঃসময়ে বন্যার্ত আর ক্রিকেটারদের পরিবারের পাশে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

আজ রোববার মিরপুরে বিসিবির প্রাধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন বলছিলেন, ‘সব সময় আমাদের চেষ্টা থাকে এ ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাদের পাশে থাকার জন্য। এবং এটার ব্যতিক্রম হবে না বলে আমি মনে করি। আমাদের বোর্ড সভাপতি মহোদয় ইতোমধ্যে আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন যে কিভাবে কি কাজ করলে হয়তো বা তাদের পাশে থাকা যাবে, সেভাবে আমাদের দেখতে বলেছেন এবং আমরা সেটা নিয়ে কাজ করছি।’

 

 

সিলেটে সাহায্যের জন্য বিসিবির পরিচালক আর বোর্ডের নারী বিভাগের প্রধান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জানা গেছে, আর্থিক সাহায্যর সঙ্গে সেখানে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেবে বিসিবি।

নিজামউদ্দিন বলেন, ‘আমাদের যে সংশ্লিষ্ট বোর্ড পরিচালক আছেন, তার সাথে আমাদের কথা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে উনি যোগাযোগ করছেন কিভাবে আমরা অংশ নিতে পারি বা কিভাবে আমরা পাশে থাকতে পারি। সে ব্যাপারে আমরা কাজ করছি। খুব শিগগির আমরা আশা করছি কিছু একটা আপনারা দেখতে পারবেন।’

জেলার বিভিন্ন জায়গা পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় সিলেট স্টেডিয়ামকে বন্যার্তদের পুনর্বাসন করার একটা আলোচনা চলছে। তবে বোর্ডের প্রধান নির্বাহী জানালেন, এমন কোনো প্রস্তাব তাদের কাছে এখনো আসেনি। আসলে সেটি ভেবে দেখবে বোর্ড।

তবে সেখানে উইন্ডিজ সফরে থাকা এবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদ, রেজাউর রহমান রাজা, নাসুম আহমেদসহ জাতীয় দল এবং আশপাশে থাকা যেসব ক্রিকেটারের পরিবার আছে। তাদের নিয়ে বাড়তি ভাবনা বোর্ডের।

 

নিজামউদ্দিন সুজন বলেন, ‘সিলেটের আমাদের জাতীয় দলের কিছু খেলোয়াড় আছেন, যারা বর্তমানে দলের সঙ্গে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য আমাদের বলা হয়েছে। আমরা সেভাবে কাজ করছি। আমাদের সংশ্লিষ্ট বোর্ড পরিচালকের তাদের সঙ্গে যোগাযোগ আছে। আমাদের যে অন্যান্য যে বিষয়গুলো, ইফেক্টের পর যেসব বিষয় আসবে সেসব বিষয়ে আমরা চিন্তা ভাবনা করছি কিভাবে তাদের পাশে থাকা যায়।’

সঙ্গে আরও যোগ করেন তিনি, ‘আমাদের যে বোর্ড পরিচালক আছেন, নাদেল চৌধুরী। তার সাথে আমাদের কথা হয়েছে, বোর্ড সভাপতি মহোদয় এ ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছেন যে আমাদের যে খেলোয়াড়রা আছেন তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে। এটা শুধু আমাদের জাতীয় দলের সঙ্গে যারা আছেন তারা না, আমার ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট যারা আছেন প্রত্যেকবার তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করি। অবশ্যই এবারও থাকব।’