ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইথিওপিয়ায় বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১০০

ইথিওপিয়ার ওরোমো অঞ্চলে বিদ্রোহীদের হামলায় একশ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। নিহতদের সবাই আমহারা জাতিগোষ্ঠীর। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, ওরোমো লিবারেশন আর্মি (ওএলএ) এই হামলার জন্য দায়ী। যদিও তারা এ হামলা দায় অস্বীকার করেছে।

আরও দুইজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, দুইশোর বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন এ হামলায়। ওরোমিয়ার আঞ্চলিক সরকার হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও হতাহতের সংখ্যাসহ ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি। মন্তব্যের জন্য আদ্দিস আবাবায় কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গেও যোগাযোগ করা যায়নি।

গিম্বি কাউন্টির বাসিন্দা আব্দুল-সইদ তাহির শনিবারের হামলা থেকে প্রাণে বেঁচে যাওয়ার পর এপি নিউজকে বলেন, ‘আমি ২৩০টি মরদেহ দেখেছি। আমার জীবনে এতো নিরীহ মানুষকে একসঙ্গে হত্যা করার ঘটনা দেখিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা তাদের গণকবর দিচ্ছি এবং এখনো মরদেহ সংগ্রহ করছি।’ ফেডারেল আর্মি ইউনিট এখন ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তবে তারা চলে গেলে আরও হামলা হতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

আরেকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, যিনি তার নিরাপত্তার ভয়ে শুধু তার প্রথম নাম শাম্বেল বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন স্থানীয় আমহারা সম্প্রদায় এখন ‘আরেক দফা গণহত্যা ঘটার আগে’ অন্য কোথাও স্থানান্তরিত হতে মরিয়া হয়ে ঘরে বেড়াচ্ছে।

তিনি বলেন যে জাতিগতভাবে আমহারা সম্প্রদায় যারা প্রায় ৩০ বছর আগে পুনর্বাসন কর্মসূচিতে এই অঞ্চলে বসতি স্থাপন করেছিল তাদের এখন ‘মুরগির মতো মেরে ফেলা হচ্ছে’।

অপর এক প্রত্যক্ষদর্শী আবদু হাসান বলেন, ‘আমার পুরো পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে। কেউ রেহাই পায়নি। আমি শুনেছি তিনশ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে। তবে দুটি গ্রামে আরও বেশি মানুষ নিহত হতে পারে’।

জাতিগত বিরোধ আফ্রিকার দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল দেশটিতে লেগেই আছে। উত্তর তাইগ্রে অঞ্চলে ২০২০ সালে শুরু হওয়ার লড়াই গত বছর আফার ও আমহারার প্রতিবেশী অঞ্চলেও ছড়িয়ে পড়ে।

সূত্র: আল-জাজিরা