ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শরীয়তপুরে ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্রকে হত্যা, তিন দিনের রিমান্ডে গ্রেফতারকৃত দুই আসামি

  • 6Words
  • Views

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুরের নড়িয়া পৌরসভার লোংসিং এলাকায় নেশা করার প্রতিবাদ করায় ও ফ্রি ফায়ার খেলাকে কেন্দ্র করে বখাটেদের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্র সিজান আকন নিহতর ঘটনায় পাঁচজনকে আসামী করে নড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। এঘটনায় এজাহারভুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে নড়িয়া থানা পুলিশ। তাদের তিনদিন করে রিমান্ড দিয়েছে শরীয়তপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

 

আজ বুধবার (০৩ আগস্ট) বিকেল ৩টার দিকে অধিকতর তদন্তের জন্য শরীয়তপুর চীফ জুডিশিয়াল মাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে নেয়া হয়। তখন আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মেসবাহ্ উদ্দিন খানের কাছে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নড়িয়া থানার এসআই রিপন নাগ দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। আদালতের বিচারক তাঁদের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

নিহত জিসানের বাবা বিল্লাল আকন ও মা রুমা বেগমের অভিযোগ, স্থানীয় বখাটে লাবিব ছৈয়াল, ইব্রাহিম ব্যাপারী জয়, রাহিম হাওলাদার, নাহিম ছৈয়াল ও জুবায়ের ছৈয়াল মিলে আমার ছেলে সিজানকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে। বখাটেরা নেশাখোর ওরা পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। আমরা হত্যাকারীদের সর্বচ্চ শাস্তি ফাঁসি দাবি করছি।

 

নড়িয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি মোতালেব ব্যাপারী বলেন, নেশা করার প্রতিবাদ করায় ও ফ্রি ফায়ার খেলাকে কেন্দ্র করে বখাটেদের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্র সিজানকে হত্যা করেছে। হত্যাকারীদের শাস্তি দাবি করছি।

 

পলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম লোংসিং মাদবর বাজার এলাকায় নেশা করার প্রতিবাদ করায় ও ফ্রি ফায়ার খেলাকে কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডা হয়। এসময় বখাটেদের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্র সিজান তাঁকে ছুরিকাঘাত করা হয়। তাঁকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত সাড়ে ৯টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

 

এছাড়া সিজানের দুই বন্ধু মুন্না ছৈয়াল ও আসিফ ব্যাপারী ছুরিকাঘাতে আহত হয়। তারা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। নিহত স্কুলছাত্র সিজান আকন নড়িয়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম লোনসিং গ্রামের বিল্লাল আকনের ছেলে। তিনি নড়িয়া বিহারী লাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। এঘটনায় ইব্রাহিম জয় ও রাহিম হাওলাদার নামে দুইজনকে আটক করেছে নড়িয়া থানা পুলিশ। এ বিষয়ে নড়িয়া থানায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছি নিহত সিজানর বাবা বিল্লাল আকন।

 

নড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম মিজানুর রহমান বলেন, সিজান হত্যার ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে আজ তাদের দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হলে আদালতের বিচারক তাঁদের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আর অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।