ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পানছড়িতে মায়ের লাশ ঘরে রেখে পরীক্ষা দিলো সুমাইয়া

  • 1Words
  • Views

পানছড়ি,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি :

মরণঘাতি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থা মায়ের মৃত্যুর সংবাদে অজ্ঞান হয়ে পড়ে খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী । পরিবারের লোকজন উপায় না পেয়ে তাকে পানছড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেবা শ্রুশ্রুষা ও জ্ঞান ফিরাতে চিকিৎসা চলে।

একই দিন ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ শনিবার সকাল ১১ টায় এসএসসি -র বাংলা ২য় পত্রের পরীক্ষা। অসুস্থ ছাত্রীকে দেখতে গিয়ে পানছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আনচারুল করিম বিষটি জানতে পারে । মেয়েটির বাবা রফিকুল ইসলাম মৃত স্ত্রী ফাতেমা বেগমের দাফন কাফনের আয়োজন করছেন। তাই পিতার আদরে এস এস সি পরীক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার কে স্যালাইন লাগানো অবস্থায় নিজের গাড়িতে করে পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৫ মিনিট পর কেন্দ্রে নিয়ে পরীক্ষার দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

পানছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ এর এমন মহানুভতায় পানছড়ি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মিজ বেলী চাকমা জানান , সুমাইয়া আক্তার বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী হলেও আমার বিদ্যালয় তার পরীক্ষা কেন্দ্র। থানার ওসি মো. আনচারুল করিম সাহেব যা করেছেন তা প্রসংশনীয়। এমন উদ্যোগ সকলেই নিয়ে কাজ করতে পারে না। তাঁর এই মহতি কাজের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

পানছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনচারুল করিম বলেন, একজন এসএসসি পরীক্ষার্থীর মা মারা যাওয়ায় পরীক্ষা দিচ্ছেনা এমন খবরে হাসপাতালে ছুটে গিয়ে তাকে সান্তনা দিই। মানসিকভাবে পরীক্ষা দেওয়ার পস্তুতি সেওয়াতে সময় যায়। অশ্রুসিক্ত চোখে কেন্দ্রে ঢুকে বারবার কেঁদেছে সুমাইয়া। প্রশ্নপত্র হাতে নিয়ে একহাতে চোথ মুছে ও অন্য হাতে খাতায় লিখেছে। মাঝে মাঝে ফুঁপিয়ে কেঁদেও উঠেছে । তবু তার পাশে থেকে পরীক্ষা সম্পন্ন করিয়েছি।