ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরের চারটি কারখানার উৎপাদন কার্যক্রম উদ্বোধন

  • 6Words
  • Views

মিরসরাই ,চট্টগ্রাম :
চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের চারটি কারখানার উৎপাদন কার্যক্রম এবং অবকাঠামো উন্নয়ন উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

২০ নভেম্বর ২০২২ রবিবার সকালে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি ভাবে উন্নয়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেন।

 

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুনের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুল রহমান, ভূমি মন্ত্রী সাইফুর রহমান চৌধুরী জাবেদ, মিরসরাইয়ের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ ইকনোমিক জোন ইনভেস্টর এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সাফওয়ান সোবহান ।

 

এ সময় অতিথিরা তাদের বক্তব্যে টেকশই শিল্পন্নোয়নের জন্যে জনবল সৃষ্টি ও অর্থনৈতিক অঞ্চলের আশপাশের কৃষি জমি রক্ষার জন্যে কর্ম পদ্ধতি নির্ধারণের অনুরোধ জানান প্রধানমন্ত্রীকে।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুল রহমান রহমান অর্থনৈতিক অঞ্চলে বাণিজ্যিক উৎপাদন উদ্বোধন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপনে বেজাকে অভিনন্দন জানান।

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর অনেক দেশে নানান মডেলের অর্থনৈতিক অঞ্চল আছে। তবে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে ধরণের অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছেন তাতে পৃথিবীর সবকটি মডেল যুক্ত রয়েছে। আমরা যদি টেকশই শিল্পন্নোয়নের দিকে এগুতে চাই তাহলে দক্ষ জনবল তৈরি করতে হবে। তার জন্য সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

ভূমি মন্ত্রী সাইফুর রহমান চৌধুরী জাবেদ বলেন, একটি দেশের অর্থনীতির উন্নতির জায়গা তৈরি করতে হলে অবশ্যই শিল্পায়নের প্রয়োজন রয়েছে। আর মাননীয় প্রধামন্ত্রীর যে ভিশন তা বাস্তবায়নের জন্য এটির গুরুত্ব অপরিসিম।

সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর প্রতিষ্ঠার সময় আপনি কথা দিয়েছেন এখানকার শিল্প কারখানায় স্থানীয় যোগ্য যুবকেরা চাকুরির সুযোগ পাবে। যা ইতোমধ্যে কোন কোম্পানী মানছে না। এটির জন্য একটি বিধি আরোপ করা দরকার। কিছু ভূমি দস্যু শিল্প জোনকে ঘিরে ফসলি জমি কেনা শুরু করেছে। যা কোন ভাবেই হতে দেয়া যায় না। ইতোমধ্যে আমি আমার এলাকার প্রশাসনের সহায়তায় অনেক ভূমি দস্যুকে ফসলি জমি থেকে উচ্ছেদ করেছি। আপনার কাছে অনুরোধ থাকবে আপনি এ বিষয়ে একটি নির্দেশনা দিবেন।

 

বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ ইকনোমিক জোন ইনভেস্টর এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সাফওয়ান সোবহান বলেন, বাংলাদেশের যে সকল অর্থনৈতিক অঞ্চলে নানামুখী ইন্ড্রাষ্ট্রি স্থাপন করা হচ্ছে এটি অর্থনীতির জন্য অবশ্যই ইতিবাচক দিক। তবে এর জন্য দরকার দক্ষ জনশক্তি।

 

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন বেজার সার্বিক অগ্রগতি তুলে ধরে উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা শিল্প কারখানার চিত্র উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরের ৪টি শিল্প ছাড়াও অন্যান্য অর্থনৈতিক অঞ্চলের আরও ১০টি শিল্প ইউনিট বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করতে যাচ্ছে, এর মধ্যে রয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ পিভিসি কারখানা। ইউসুফ হারুন বলেন, ‘বাণিজ্যিক আত্মপ্রকাশের জন্য প্রস্তুত এই ১৪টি শিল্পে ইতোমধ্যে প্রায় ৯৬৭.৭৩মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হয়েছে এবং আগামীতে আরো ৩৩১.২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হবে বলে আমরা আশা প্রকাশ করছি।

 

প্রসঙ্গত, রবিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরের মিরসরাই অংশে উদ্বোধন হওয়া প্রকল্প গুলো হচ্ছে, ২০ বর্গ কিলোমিটার শেখ হাসিনা সরণি, ২৩০ কেভিএ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন, একটি বিদ্যুৎ সাবস্টেশন, ভারতের এশিয়ান পেইন্টস, জাপানের নিপ্পন স্টিল, ম্যাকডোনাল্ড ও টিকে গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান সামুদা কনস্ট্রাকশন লিমিটেড। ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করা হয় বসুন্ধরা গ্রুপের প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা মাল্টি স্টিল ইন্ড্রাষ্ট্রিজ লিমিটেড, বসুন্ধরা কেমিক্যাল ইন্ড্রাষ্ট্রিজ লিমিটেড, বসুন্ধরা প্রিপেব্রিকেটেড বিল্ডিং ম্যানুফাকচারিং লিমিটেড। এছাড়া ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেড, কিয়াম মেটাল লিমিটেড, এসকিউ ইলেক্ট্রনিক লিমিটেড ও সামুদা ফুড প্রোডাক্ট লিমিটেড এর নির্মাণাধীন কারখানা ও প্রতিদিন ৫০ মিলিয়ন লিটার (এমএলডি) পানি পরিশোধন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট এর ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।