ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

৮১ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে ফের কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট তোকায়েভ

  • 3Words
  • Views

কাজাখস্তানে সদ্য শেষ হওয়া নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী অন্যান্য প্রার্থীদের বিপুল ব্যবধানে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট কাসিম-জোমার্ট তোকায়েভ। নির্বাচনের ফলাফল বিশ্লেষণ শেষে জানা গেছে, ৮৩ দশমিক ৩১ শতাংশ ভোটার তোকায়েভকে দেশের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান।

কাজাখস্থানের সরকারি তথ্যের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সদ্য শেষ হওয়া এই নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন দেশটির ৬৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ ভোটার। তোকায়েভের প্রতিদ্বন্দ্বী অন্যান্য প্রার্থীদের কারোরই প্রাপ্ত ভোটের পরিমাণ শতাংশ হিসেবে দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেনি।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য বিশ্লেষণ করে আরও জানা গেছে, অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের তুলনায় এবারের নির্বাচনে ‘না’ ভোটের পরিমাণ ছিল তুলনামূলকভাবে বেশি। ৫ দশমিক ৮ শতাংশ কাজাখ ভোটার ‘না’ ভোট দিয়েছেন। এমনকি ভোটের হিসেবে তোকায়েভের পরই দ্বিতীয় স্থান ‘অর্জনে’ সক্ষম হয়েছে ‘না’ ভোট।

নির্বাচনে জয়ের মাধ্যমে পরবর্তী ৭ বছরের জন্য ফের এক সময়ের সোভিয়েত রাজ্য তেলসমৃদ্ধ কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট থাকার বৈধতা পেলেন তোকায়েভ, যিনি ইতোমধ্যে সোভিয়েত প্রভাবের বাইরে একটি স্বাধীন পররাষ্ট্রনীতি গড়ে তুলতে কাজ করছেন।

নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর এক প্রতিক্রিয়ায় সাবেক এই কূটনৈতিক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা বলতে পারি, কাজাখস্তানের অধিকাংশ জনগণ প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার ওপর আস্থা রাখতে চায়।’

তবে কাজাখস্তানের নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারী বিদেশি সংস্থা অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরি অ্যান্ড কোঅপারেশন ইন ইউরোপের মতে, এই নির্বাচনে তোকায়েভের জয়ের প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে দু’টি ব্যাপার— দেশটির নির্বাচনী আইন এবং অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের যথেষ্ট প্রচার-প্রচারণার অভাব।

সোমবার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার আগেই এশিয়ার অনেক দেশের সরকারপ্রধান তোকায়েভকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণার পর তাকে অভিনন্দন জানিয়েছে মস্কো এবং বেইজিং।

২০১৯ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পূর্বসূরী নুরসুলতান নজরবায়েভের সমর্থন নিয়ে প্রথমবারের মতো কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট হন ৬৯ বছর বয়সী কাসিম-জোমার্ট তোকায়েভ। কিন্তু চলতি বছর জ্বালানির দাম বাড়ানোর পর ভয়াবহ বিক্ষোভ হয় ২ কোটি মানুষ অধ্যুষিত এই দেশটিতে। সেই বিক্ষোভের জেরে সরকার পদত্যাগ করতে বাধ্য হয় কাজাখস্তানের সরকার।

এতদিন নির্বাচনকালীন সরকার দেশটিতে ক্ষমতাসীন ছিল। তোকায়েভের বিজয়ের মাধ্যমে ফের নির্বাচিত সরকারের পর্বে প্রবেশ করল কাজাখস্তান।

সূত্র : রয়টার্স