ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পুলিশি নিরাপত্তায় আদালতে হাজির হওয়া ১০ আসামির ৭ জনের জামিন

  • 2Words
  • Views

কিশোরগঞ্জ আইনজীবী সমিতির এক সদস্যকে মারধরের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় হাইকোর্টের নির্দেশে পুলিশি নিরাপত্তায় আদালতে হাজির হওয়া কিশোরগঞ্জের সেই ১০ আসামির ৭ জনের জামিন দেওয়া হয়েছে। ৩ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১  এর বিচারক মো. রফিকুল বারীর আদালতে হাজির হলে সাতজনের জামিন মঞ্জুর ও তিনজনকে জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

আসামিরা হলেন- কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চৌদ্দশত ইউনিয়নের খালের পাড় গ্রামের মো. রাসেল মিয়া (৪০), মো. জুবায়ের মিয়া (৩৭), মো. ফাইজুল ইসলাম (৫০), মো. কফিল উদ্দিন (২৮), মো. রাজিব মিয়া (২৫), মো. মকবুল হোসেন রুবেল (৩৪), মো. সোহেল মিয়া (৩০), মো. নজরুল ইসলাম (৪৮), আব্দুল মালেক (৬০) ও মো. আব্দুল কাইয়ুম (ধনু মিয়া) (৬০)। এদের মধ্যে মো. রাসেল মিয়া, মো. জুবায়ের মিয়া, মো. ফাইজুল ইসলামকে কারাগারে পাঠান আদালত।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, জমিজমা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে কিশোরগঞ্জ আদালত চত্বরে উকিল সালিস বৈঠক ডাকা হয়। ওই বৈঠকের একপর্যায়ে মারধরের অভিযোগ এনে গত ১২ অক্টোবর কিশোরগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট এম আব্দুর রউফ মামলা করেন। ১২ জনকে আসামি করে কিশোরগঞ্জের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে এ মামলা করা হয়।

এই মামলায় গত ২২ অক্টোবর হাইকোর্ট ১০ জনকে আগাম জামিন দেন। একই সঙ্গে ৬ সপ্তাহের মধ্যে তাদের কিশোরগঞ্জ আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। কিন্তু আসামিরা কিশোরগঞ্জ আদালতে হাজির হতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন মর্মে হাইকোর্টে আবেদন করলে আবেদনের শুনানিকালে হাইকোর্ট ১০ জনকে পুলিশি নিরাপত্তা দিয়ে কিশোরগঞ্জ আদালতে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. আতিকুল হক বুলবুল। তিনি বলেন, আমরা আসামিদের জামিন বাতিলের প্রার্থনা করলে আদালত তিনজনের জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কিশোরগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আমিনুল ইসলাম রতন জানান, আসামিরা গত ১৯ অক্টোবর হাইকোর্ট থেকে ছয় সাপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পান।  ১০ নভেম্বর কিশোরগঞ্জের চিফ জুডিশিয়াল মাজিস্ট্রেট আদালতে আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান ভূঁইয়া উৎপলের মাধ্যমে জামিননামা দাখিল করেন। ওই সময়েও আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তখনো তাদের নিরাপত্তায় কোনো সমস্যা ছিল না। আজকেও আসামিদের আদালতে উপস্থিত হতে নিরাপত্তায় কোনো সমস্যা ছিল না।

এদিকে আসামিদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান ভূঁইয়া উৎপল জানান, মামলার বিষয়ে সঠিক ধারণা না থাকায় আসামিরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এর আগেও নির্বিঘ্নে আসামিরা আদালতে হাজির হয়েছেন। আজকেও তারা নির্বিঘ্নে আদালতে হাজির হয়েছেন।