ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বডি বিল্ডার শুভর পক্ষে লড়বেন ব্যারিস্টার সুমন

  • 2Words
  • Views

জাতীয় পর্যায়ে চারবার স্বর্ণজয়ী বডি বিল্ডার জাহিদ হাসান শুভর পক্ষে আইনি লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

রোববার (২৫ ডিসেম্বর) বডি বিল্ডার শুভর সঙ্গে ফেসবুক লাইভে এসে ব্যারিস্টার সুমন এ ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, শুভর জন্য আইনি যতটুকু সাহায্য দরকার, আমি করব। সবাই জানুক, কিছু কিছু মানুষ এখনও শুভদের পক্ষে কাজ করে যাচ্ছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশ বডি বিল্ডিং ফেডারেশনের তত্ত্বাবধায়নে জাতীয় শরীর গঠন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ২০ থেকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজধানীর জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের শেখ কামাল অডিটোরিয়ামে বসে তিন দিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতা। তবে সম্প্রতি এই আসরটিকে ঘিরে বাংলাদেশ বডি বিল্ডিং ফেডারেশনের দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওতে দেখা যায়, আসরের সমাপনী অনুষ্ঠানে রানার্সআপ হিসেবে জাহিদ হাসান শুভ নাম ঘোষণা করা হয়। তবে আয়োজকদের সেই সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট হন শুভ। এর পরপরই অর্জিত পুরস্কারকে লাথি মেরে ফেলে দিতে দেখা যায় জাতীয় পর্যায়ে চারবার স্বর্ণজয়ী সেই বডি বিল্ডারকে।

 

আজ ব্যারিস্টার সুমন তার ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি খেলাধুলায় উগ্রতাকে সমর্থন করি না। তবে দুর্নীতি ও অব্যাবস্থাপনায় জর্জরিত ফেডারেশনের বিরুদ্ধে যখন অভিযোগ আসে, তখন মানুষের ক্ষোভে ফেটে পড়াটা স্বাভাবিক।

এই প্রসঙ্গে ভিডিওতে থাকা আলোচিত সেই বডি বিল্ডার শুভ বলেন, টাকা-পয়সা বড় কথা নয়। আমি মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে। আসর শুরুর আগে আমি চারদিন পানি খাইনি। এমন ঘটনা কিডনিকে শেষ করে দিতে পারে। এর জন্য মস্তিষ্কের উপরও ব্যাপক চাপ আসে।

শুভ বলেন, আমার শরীর এতো সুন্দর থাকার পরও আমাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়নি। তবে কি আমি মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে এসেছি বলে, আমার সঙ্গে এমন অবিচার করা হয়েছে? শুধু আমি না, এর আগেও অনেক বডি বিল্ডারের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটেছে। তবে আমার লাথি মারার ঘটনাটি নিতান্তই আবেগের বশে হয়ে গিয়েছিল। আমার সেই লাথি ছিল দুর্নীতির বিরুদ্ধে। পরবর্তী প্রজন্ম যেন এমন অবিচার আর না পায়।

শুভর সঙ্গে ফেডারেশনের এমন দুর্নীতির ঘোর প্রতিবাদ করে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, যে এলাকায় কৃতি সন্তানদের সম্মান দেওয়া হয় না, সেই এলাকায় নতুন করে আর কৃতি সন্তান পয়দা হয় না। এজন্যই আমি বডি বিল্ডিং ফেডারেশনকে অনুরোধ করব একজন শুভকে শেষ করে দিয়ে, আরেক শুভকে তৈরি করে দেখান।