ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

খাগড়াছড়িতে হাজার ভিক্ষুকে পিণ্ডদান অনুষ্ঠান সম্পন্ন

  • 12Words
  • Views

স্টাফ রিপোর্টার, খাগড়াছড়ি :
খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা সদরে মধুপুরে ঐতিহাসিক এক মহতি পূণ্যানুষ্ঠান হাজার ভিক্ষু সঙ্ঘকে পিণ্ডদান ২০২২ ধর্মীয় মর্যাদায় ভাবগাম্ভীর্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

৩০ ডিসেম্বর ২০২২ শুক্রবার খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার জেলা সদরের মধুপুরে হাজার ভিক্ষু সঙ্ঘকে পিণ্ডদান ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় ভাবগাম্ভীর্যের মাধ্যমে পূণ্যানু্ষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

 

অনুষ্ঠানে বুদ্ধ মূর্তি দান, সীবলী ভান্তে মূর্তি দান, অষ্টপরিস্কার দান, মহাসঙ্ঘ দান, কল্পতরু দান, ৮৪ প্রদীপ প্রজ্বলন, প্রাণী দান বা প্রাণী অবমুক্ত করণ, আকাশ প্রদীপ উত্তোলন বা ফানুস উড়ানোর জন্য উৎসর্গ করা হয় ।

 

ধর্মীয় পূণ্যানুষ্ঠানের প্রধান মধ্যমনি খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার গামাঢ়ী ঢালা বন বিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বোধিপাল মহাস্থবির (৫৫ বর্ষ) । ভিক্ষু সঙ্ঘের মধ্যে থেকে শ্রীমৎ তিলোকানন্দ মহাস্থবির, শ্রীমৎ সুমনালঙ্কার মহাস্থবির, শ্রীমৎ চান্দ্যা সারা মহাস্থবির, শ্রীমৎ সুমনা মহাস্থবির, শ্রীমৎ তেজ বংশ মহাস্থবির, শ্রীমৎ শ্রদ্ধালঙ্কার মহাস্থবির সহ সহস্রাধিক মহাস্থবির ভিক্ষু সঙ্ঘ সহ এক হাজার একশত ছয়চল্লিশ জন বৌদ্ধ ভিক্ষু সঙ্ঘ উপস্থিত ছিলেন।

 

অনুষ্ঠানে ভিক্ষু সঙ্ঘের মধ্যে থেকে বুদ্ধের অমোঘ সত্য বাণীর সূত্র ও আশীর্বাদ প্রদান করেন শ্রীমৎ বিমলানন্দ মহাস্থবির ও শ্রীমৎ আচার্যা বিচারা স্থবির।

 

পূণ্যানুষ্ঠানের প্রধান পিণ্ডদাতা হলেন শ্রীমতি পদ্মরেণু খীসা, শ্রীমতি ইনা চাকমা (সীমা), শ্রীমতি নুপুর চাকমা। আর প্রধান শ্রদ্ধাদানকারী সুব্রত তালুকদার ও তাঁর পরিবার।

 

চাঙমা সাহিত্য বাহ্ র বাস্তবায়িত ‘সুনীতি রঞ্জন তালুকদার-পদ্ম রেনু খীসা শিক্ষা বৃত্তি’ র দাতা হলেন সুগত তালুকদার এবং হাজার ভিক্ষু পিণ্ডদান-২০২২ অনুষ্ঠানের প্রধান শ্রদ্ধাদানকারী সুব্রত তালুকদার। এ ছাড়াও সুব্রত তালুকদার ও তাঁর সহধর্মিণী ইনা চাকমা সীমা পরম পূজনীয় শ্রদ্ধেয় শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থবিরের স্মৃতি স্বরূপ বিশ্ব শান্তি প্যাগোদা নির্মাণের উদ্দেশ্যে রাজ বন বিহারের আবাসিক প্রধান ও বন ভন্তের শিষ্য সঙ্ঘের প্রধান শ্রীমৎ প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবিরের নিকট সাবাইক পূর্ণ টাকা দান করেন।

 

পূণ্যানুষ্ঠানের পরিচালনায় ছিলেন সুখময় চাকমা, চম্পানন চাকমা, জিতেন চাকমা, অনুষ কান্তি চাকমাসহ কমিটির সকল সদস্য-সদস্যাবৃন্দ, সুসজ্জিত স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী এবং দায়ক-দায়িকা ও উপাসক-উপাসিকাবৃন্দসহ সমবেত পূণ্যার্থীবৃন্দরা ।