ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রামগড়ে শ্যালকের বিরুদ্ধে দুলাভাইকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নিহত দীপক ঘোষ মুন্না
  • 7Words
  • Views

রামগড় ,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:
খাগড়াছড়ির রামগড়ে দুলাভাইকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শ্যালকের বিরুদ্ধে।

সোমবার মধ্যরাতে রামগড় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের শ্মশান টিলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত দীপক ঘোষ মুন্না (৩৮) পৌরসভার শ্মশান টিলা এলাকার রাখাল ঘোষের ছেলে। সে পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী। তার স্ত্রী ও দুই ছেলে রয়েছে।

 

 

এই ঘটনায় শ্যালক সাগর ত্রিপুরা (২৫) ও তার এক সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে রামগড় থানা পুলিশ।

 

প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান, সোমবার গভীর রাতে মদ্যপ অবস্থায় সাগর ও তার কয়েকজন বন্ধু মুন্নাকে মারার জন্য তার বাড়ির সামনে অবস্থান নেয়। মুন্না বাড়ির সামনে আসলে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। এতে সে গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসকের নিকট থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে নিয়ে যায়। সকালে মুন্নার অবস্থা অবনতি হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুন্নার মৃত্যু হয়।

 

 

নিহতের পিতা রাখাল ঘোষ তার ছেলেকে সাগর ত্রিপুরা এবং তার বন্ধুরা মিলে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তার ছেলে এবং পুত্র বধুর সম্পর্ক খারাপ যাচ্ছিলো। দুই জন দীর্ঘদিন আলাদাও থাকছিলেন। তার পুত্রবধু কনিকা গার্মেন্টসে চাকরির সুবাধে চট্টগ্রাম থাকেন। কয়েকবার চেষ্টা করেও কনিকাকে বাড়িতে আনা যায়নি । এ নিয়ে সামাজিক পর্যায়ে সালিশ বৈঠক বসে। বৈঠকে দুজনের ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত হয়। এ সময় শ্যালক সাগর ত্রিপুরার সাথে মুন্নার বাকবিতন্ডা হয়। ক্ষুব্ধ হয়ে সাগর তার ছেলে মুন্নাকে হত্যা করেছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

 

 

রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মিজানুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদরে পাঠানো হয়েছে। আটককৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ হত্যার ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুুতি চলছে বলে জানান তিনি।