ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পরীমণি নিয়ে যা বললেন সিয়াম

চিত্রনায়িকা পরীমনি এখনো রয়েছেন কারাগারে। গত ৪ আগস্ট আটকের পর থেকে দফায় দফায় তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে, আদালতে তোলা হয়েছে। কিন্তু জামিন মেলেনি নায়িকার। আদালতের নির্দেশে কাশিমপুর কারাগারেই কাটছে সুদর্শনা এই নায়িকার দিন।

 

পরীমনি গ্রেপ্তারের পর প্রথম কয়েক দিন শোবিজের বেশির ভাগ মানুষ তার বিপক্ষে কথা বলেছিলেন। তবে দিন গড়াতেই বদলে যায় সবার মনোভাব। এখন অনেকেই পরীর পক্ষে কথা বলছেন, তার মুক্তি দাবি করছেন।

 

এবার পরীর বিষয়ে কথা বললেন সিয়াম আহমেদ। সিয়াম বলেন, ‘তিনি মানুষের জন্য অনেক করেছেন। অনেক অনাহারীকে খাইয়েছেন। সংসার চলে না, এমন অনেককে সহযোগিতা করেছেন। এগুলো একজন ভালো মানুষের লক্ষণ। আমি চোখের সামনে অন্যের জন্য পরীমনিকে কিছু করতে দেখেছি। ক্ষমতা তো অনেকেরই থাকে, কতজন করেন।’

 

পরীমনির ঘটনার সঠিক তদন্ত এবং বিচারের প্রত্যাশা সিয়ামের। তিনি বলেন, ‘দেশের আইনি ব্যবস্থার প্রতি আমাদের পূর্ণ আস্থা আছে। এমন কিছু হয়নি যে আমাদের আস্থা নষ্ট হয়ে যাবে। আমরা ওয়েট করছি। তিনি প্রপার জাস্টিস পাবেন। আশা করি, তিনি সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে বের হবেন। আবারও কাজে ফিরবেন।’
গত ৪ আগস্ট বনানীর বাসা থেকে পরীমনিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়।

 

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ৪ আগস্ট বাদীসহ র‌্যাব-১-এর সদস্যরা গুলশান-১-এর গোলচত্বরে অবস্থান করছিলেন। বিকেল ৪টা ৫ মিনিটের দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন, বনানীর একটি বাসায় পরীমনি তার সহযোগী আশরাফুল ইসলামের মাধ্যমে বিদেশি মদ সংগ্রহ করে মজুদ করে রেখেছেন। তারা বাসায় অবস্থান করছেন। পরে বাসার পঞ্চম তলায় অভিযান চালানো হয়। পরীমনির বাসা থেকে নারী র‌্যাব সদস্যের সহায়তায় তাকে আটক করা হয়। বাসার একটি কক্ষে কাঠের ফ্রেমের ভেতর থেকে বিদেশি মদ জব্দ করা হয়।

 

মামলার অভিযোগে বলা হয়, পরীমনির বাসা থেকে একটি সাদা জিপারে রাখা চার গ্রাম আইস বা ক্রিস্টাল মেথ জব্দ করা হয়। আরো জব্দ করা হয় এক ব্লট ভয়ংকর এলএসডি মাদক। পরীমনির বাসা থেকে জব্দ বিদেশি মদসহ অন্যান্য মাদকের মোট দাম দেখানো হয়েছে দুই লাখ সাত হাজার টাকা।


error: Content is protected !!