আজ শুক্রবার| ২৯শে মে, ২০২০ ইং| ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ শুক্রবার | ২৯শে মে, ২০২০ ইং

খাগড়াছড়িতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ব্যতিক্রমধর্মী ১ মিনিটের বাজার

খাগড়াছড়িতে  বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ব্যতিক্রমধর্মী ১ মিনিটের বাজার

করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে বিভিন্ন সেবামূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী । চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান,নরসিংদী, খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা ও মানিকছড়ির পর এবার খাগড়াছড়ি সদরে ব্যতিক্রমধর্মী একটি উদ্যোগের নাম ‘১ মিনিটের বাজার ।

২০ মে ২০২০ বুধবার সকালে খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন কর্তৃপক্ষ প্রান্তিক চাষিদের থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী কিনে তা ‘১ মিনিটের বাজার’ নামে খাগড়াছড়ি জেলা স্টেডিয়ামে আয়োজিত ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগের মাধ্যমে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রান্তিক চাষীরা তাদের উৎপাদিত কৃষিজ পণ্য যেমন সহজে বিক্রি করতে পারছেন না ঠিক তেমনি নিম্ন আয়ের মানুষও নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী অর্থাভাবে এবং যোগান না থাকায় কিনতে পারছেন না। ঠিক তখন ১ মিনিটের বাজারে পছন্দের সব উপকরণই পেয়েছেন বিনামূল্যে ।

খাগড়াছড়ি স্টেডিয়াম ঘুরে দেখা যায় , সেনা রিজিয়নের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও সেনা জোনের আয়োজনে ও পরিচালনায় সুশৃঙ্খলভাবে স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে সকলেই যার যার পণ্য সংগ্রহ করছে। এই বাজার থেকে বিনামূল্যে চাল,আলু,পুঁইশাক,বরবটি, চিচিঙ্গা, করলা, ঢেঁড়স, লেবু,আনারস,সাবান,খাবার স্যালাইন ও সিভিট সংগ্রহ করার সুযোগ পেয়েছেন সাধারণ নিম্ন আয়ের মানুষ।

খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো.ফয়জুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী করোনা পরিস্থিতির কারণে বিপদগ্রস্ত প্রান্তিক কৃষক ও সাধারণ নিম্ন আয়ের মানুষের ব্যাপারে নিয়মিত খোঁজ খবর রাখছেন। খাগড়াছড়ির প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে এইসব খাদ্যসামগ্রী সংগ্রহ করা হয়েছে যেমন লেবু রামগড়,আনারস মহালছড়ি এবং শাক সবজি পানছড়ি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রান্তিক চাষীদের কাছ থেকে ন্যায্য মূল্যে কিনে আনা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এ ধরনের উদ্যোগ চালিয়ে যাবার পরিকল্পনা রয়েছে ।

এদিকে এই উদ্যোগের জন্য ভীষণ খুশি সাধারণ প্রান্তিক চাষীরা এবং নিম্ন আয়ের সাধারণ মানুষ। বাজারে এসে অনেক দরিদ্র মানুষই আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন নিজের পছন্দের পণ্যসামগ্রী এত সহজে বিনামূল্যে পাবার ব্যবস্থা দেখে।তারা সবাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও সাধুবাদ জানিয়েছেন। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এই ধরনের সেবামূলক কাজ চলমান থাকুক এই প্রত্যাশা করেন সাধারণ মানুষ ।

শেয়ার করুন-Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print

সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা

error: Content is protected !!