ঢাকা, সোমবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিদ্যা বালান তোপের মুখে

বিদ্যা বালান তোপের মুখে পড়েছেন। সুশান্তের সাবেক প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর পাশে দাঁড়িয়ে তিনি সাধারণ মানুষের কাছে ভিলেন হয়ে গেলেন। রিয়ার পক্ষে কথা বলার কারণে একের পর এক ট্রোলের শিকার হচ্ছেন এ অভিনেত্রী।

শুধু বিদ্যা বালান নয়, এর আগে সুশান্ত ও রিয়ার সুবিচার পাওয়ার জন্য তেলেগু অভিনেত্রী লক্ষ্মী মানচু টুইট করেছিলেন। টুইটে তিনি লেখেন, রিয়া এবং সুশান্ত দুজনের জন্যই সুবিচার চাওয়া উচিত। এই সময়ে অন্যান্য সহকর্মীদের পাশে দাঁড়ানো উচিত।

রিয়াকে সমর্থন করে নিজের মাইক্রোব্লগিং সাইটে ভারতে আরেক অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর লিখেছেন, ‘রিয়া ভয়ংকর ও অদ্ভুদ মিডিয়া ট্রায়ালের শিকার হচ্ছেন। আশা করছি, দেশের শীর্ষ আদালত ভুয়া ও স্বরচিত খবর প্রকাশ করা গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। আইন সবার জন্যই সমান, সবকিছুর বিচার হোক।’

বিদ্যা বালান টুইটারে লেখেন, ‘কারো দোষ প্রমাণিত হওয়ার আগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না। এই মুহূর্তে রিয়াকে মানসিক শক্তি জোগাতে আমাদের তার পাশে দাঁড়ানো উচিত।’ বিদ্যার টুইটের পর তার বিরুদ্ধে চটেছেন নেটজনতার একাংশ। তাকে ‘লজ্জাজনক’ আখ্যাসহ ‘হিপোক্রিট’ বলেও মন্তব্য করেছেন নেট দুনিয়ার বাসিন্দারা।

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজ বাসায় বলিউডের এ তরুণ নায়কের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে, আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। আত্মহত্যার বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না সুশান্তের অসংখ্য ভক্ত। সেই তালিকায় রয়েছেন বলিউডের অসংখ্য তারকা থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বও।

ভারতের সুপ্রিম কোর্টের কাছ থেকে কেন্দ্রীয় তদন্তের ব্যাপারে গত ২৫ আগস্ট সবুজ সংকেত পাওয়ার পরেই তদন্ত শুরু করে সিবিআই। এর আগে বিহার পুলিশের কাছে সুশান্তের পরিবার রিয়া চক্রবর্তী, তার বাবা-মা এবং ভাই শৌভিকের বিরুদ্ধে যে এফআইআর দায়ের করেছিলো তার ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। ইতোমধ্যে সিবিআই মামলা হাতে নিয়ে চার দফায় রিয়া চক্রবর্তীসহ বেশ কয়েকজনকে জেরা করেছেন। সিবিআই ৭ দিন ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন সুশান্তের বন্ধু সিদ্ধার্থ পিঠানিকেও, নানা প্রশ্ন করা হয়েছে সুশান্তের বাড়ির রাঁধুনিকেও।


error: Content is protected !!