ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কোটচাঁদপুরে লাঙ্গলের ফালে উঠে এলো ৩টি শক্তিশালী গ্রেনেড 

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর পৌর শহরের উপজেলা ভূমি অফিস সংলগ্ন সলেমানপুর দাস পাড়ার মাঠ থেকে ৩টি শক্তিশালী গ্রেনেড ও ২৪৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ ও র‌্যাব। মুক্তিযোদ্ধাকালীন সময়ে সেখানে একজন গেরিলা মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ছিল। ছেলেরা জমি ওই চাষাবাদ করতে গিয়ে এই গুলি ও গ্রেনেডের সন্ধান পায়। তাদের লাঙ্গলের ফালে পুরানো মরিচাপড়া গুলির তোজদানী উঠে আসে।

 

পুলিশ ও এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে, ২৫ সেপ্টম্বর পুলিশ খবর পেয়ে প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছুদ্দীনের ছেলে উজ্জল হোসেনের দেওয়া তথ্যমতো তাদের পুরানো ভিটে বাড়ি থেকে ২৪৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে। চাষাবাদের সময় এই বিপুল পরিমান গুলির সন্ধান পান উজ্জল। পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ গুলি উদ্ধার করলেও গ্রেনেড উদ্ধার না করে এলাকাটি ঘিরে রেখে চলে যায়। গত সোমবার র‌্যাবের বোমা ডিসপোজাল টিম খুলনা থেকে ঘটনাস্থলে এসে ৩টি এম ৩৬ মডেলের গ্রেনেড উদ্ধার ও ধ্বংষ করে।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোটচাঁদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহায়মেনুল ইসলাম। তিনি জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামছুদ্দিনের ছেলে মোঃ উজ্জ্বল হোসেন নিজেদের জমি চাষ করতে গিয়ে মরিচা পড়া পরিত্যক্ত গুলির সন্ধান পান। গুলি কুড়িয়ে উজ্জল নিজ বাড়িতে রেখে পুলিশকে পুরো ঘটনাটি খুলে বলেন। পুলিশের ধারণা মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন সময় মুক্তিযোদ্ধারা ওই স্থানে গুলি ও গ্রেনেড মজুদ রেখেছিলেন। মুক্তিযোদ্ধার ছেলে উজ্জল তাদের জমিতে আরো আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলা বারুদ থাকতে পারে বলে এমন তথ্য দিলে পুলিশ র‌্যাবের বোমা ডিসপোজাল ইউনিটকে খবর দেয়।

 

ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর শরিফ আহসান জানান, দুই দিন ধরে তারা এই অভিযোন পরিচালনা করে সোমবার সকালে শেষ করেন এবং উদ্ধারকৃত ৩টি এম ৩৬ মডেলের গ্রেনেড ধ্বংস করেন। এ সময় র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ শরীফ আহসান, ইস্কট কমান্ডার তারেক আমান বান্না, সার্জেন্ট সেলিম আজাদ, আল আমিন, মাসুম বিল্লাহ ও কোটচাঁদপুর মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।


error: Content is protected !!