ঢাকা, সোমবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২৬শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চেন্নাইকে হারিয়ে দুইয়ে দিল্লির অবস্থান

আগের ম্যাচে ভাগ্য সহায় ছিল। টাইয়ের পর সুপার ওভারে শেষ হাসি হাসে দিল্লি ক্যাপিটালস। এবার অবশ্য ভাগ্যের দরকার হয়নি। গতবারের রানার্সআপ ও তিনবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসকে হেসে খেলেই হারিয়েছে শ্রেয়াস আয়ারের দল।দুবাইয়ে একতরফা ম্যাচে চেন্নাইকে ৪৪ রানে হারিয়েছে দিল্লি। চলতি আইপিএলে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার এক নম্বরে উঠে এসেছে দলটি। অপরদিকে তিন ম্যাচে এটি টানা দ্বিতীয় হার মহেন্দ্র সিং ধোনির দলের।

 

১৭৬ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি তাড়া করতে নেমে দিল্লি বোলারদের তোপে শুরু থেকেই ধুঁকেছে চেন্নাই। ৯ ওভার পার হওয়ার পর মাত্র ৪৪ রান তুলতে পারে তারা, হারায় ৩ উইকেট।এক ফাফ ডু প্লেসিস ছাড়া বলার মত কিছু করতে পারেননি কেউ। তিন নম্বরে নেমে একটা প্রান্ত আগলে রাখা ডু প্লেসিস ইনিংসের ১৮তম ওভারে আউট হন ৩৫ বলে ৪৩ রান করে। চেন্নাইয়ের রান তখন ৫ উইকেটে ১১৩। ম্যাচটা কার্যত শেষ তখন। ১৬ বলে দরকার ছিল ৬৩ রান।

 

 

ওই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ধোনি ১২ বলে আউট হন ১৫ রানে। জাদেজা ৯ বলে করেন ১২। ৭ উইকেটে ১৩১ রানে থামে চেন্নাই।দুর্দান্ত বোলিং দিল্লির চার বোলারের৷ রাবাদা, নর্টজে, অক্ষর ও অমিত মিশ্র কোনও সময় চেন্নাই ব্যাটসম্যানদের মাথার চড়তে দেননি৷ সবচেয়ে সফল রাবাদা, ২৬ রানে নেন ৩ উইকেট।

 

 

এর আগে পৃথ্বি শয়ের হাফসেঞ্চুরিতে ভর হরে ৩ উইকেটে ১৭৫ রানের লড়াকু পুঁজি পায় দিল্লি। পৃথ্বি ৪৩ বলে খেলেন ৬৪ রানের ঝড়ো ইনিংস। আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান করেন ২৭ বলে ৩৫।রান পেয়েছেন দিল্লির পরের দুই ব্যাটসম্যানও। রিশাভ পান্তের উইলো ছুঁয়ে আসে ২৫ বলে ৫ চারে হার না মানা ৩৭ রান। অধিনায়ক শ্রেয়াস আয়ার ২২ বলে করেন ২৬, বাউন্ডারি মেরেছেন একটি।

 

দুই ইনিংস মিলিয়ে ছক্কা হয়েছে মাত্র ৩টি। বোঝাই যাচ্ছে উইকেট শট খেলার জন্য খুব একটা উপযোগী ছিল না। দিল্লির ১৭৫ রানও তাই চেন্নাইয়ের কাছে পাহাড়সমান ঠেকেছে। পুরো ওভার ব্যাটিং করেও কাছাকাছি যেতে পারেনি তারা।


error: Content is protected !!