ঢাকা, শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হৃদয়ের ‘পঞ্চাশে’ মন ভরেনি হাথুরুর

লম্বা সময় পর বহুজাতিক টুর্নামেন্টে ভারতের বিপক্ষে জয়। ব্যর্থতার এশিয়া কাপে সুন্দর এক সমাপ্তি। বাংলাদেশ আর ভারতের মর্যাদার লড়াইতে জয় নিয়ে ফেরা। এমন আরও অনেকভাবেই বলা যেতে পারে শুক্রবারের এশিয়া কাপের ম্যাচ ঘিরে। তবে এদিন বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি টাইগারদের হার না মানার মানসিকতা।

মোটা দাগে পুরো আসরেই বাংলাদেশের টপ অর্ডার ব্যর্থ হয়েছে। শেষ ম্যাচটাতেও ছিল না ব্যতিক্রম। লিটন দাস আর এনামুল বিজয়ের আউট, তানজিদ তামিমের ইনিংস বড় করতে না পারা কিংবা মিরাজের অল্পে গুটিয়ে যাওয়া। মিডল অর্ডারে অবশ্য সেই বিপর্যয় সামাল দিয়েছে। ফিফটি করেছেন সাকিব আর তাওহিদ হৃদয়। তবে কোচ হাথুরুসিংহে অবশ্য হৃদয়ের পারফর্মে সন্তুষ্ট নন।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘হৃদয় নিজের দায়িত্ব ও গেম সম্পর্কে বেশ অবগত। অভিষেকের পর থেকেই সে রান করছে। সত্যি বলতে আমি আজ তাকে নিয়ে একটু হতাশ। কারণ ফিফটির পর উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছে। সে আমাদের আরও রান এনে দিতে পারতো। তবে সে জানে, তার কী করণীয়, দলের জন্য কী কী করতে হবে।’

লম্বা এক সময় পর আজ রানের দেখা পেলেন বাংলাদেশের টেইল এন্ডের ব্যাটাররা। নাসুম আহমেদের ৪৪, শেখ মাহেদির ২৯ আর তানজিম সাকিবের ১৪ রান বাংলাদেশকে এনে দিয়েছিল লড়াকু পুঁজি।

ম্যাচশেষে তাই টেইলএন্ডারদের প্রশংসা করতে ভোলেননি হাথুরু, ‘আমরা ১৯০ রান করেছিলাম ৭ উইকেট হারিয়ে। আগের ম্যাচগুলোতে ব্যাটিং অর্ডারের নিচের দিকে কোনো সাপোর্ট পাওয়া যায়নি। আজকের দিন ভিন্ন ছিল, টেইলএন্ডাররা আমাদের ম্যাচে জিইয়ে রেখেছে।’


error: Content is protected !!