ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে শরীয়তপুরে স্বাস্থ্য সহকারীদের অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ স্বাস্থ্য সহকারীদের নিয়োগবিধি সংশোধন করে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে শরীয়তপুরের সকল উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারীরা অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

 

শনিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত স্ব স্ব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ কর্মসূচি পালন করছে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা।

 

 

শরীয়তপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কার্যালয়ের সামনে কমপ্লেক্সর কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ হেলথ এসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশনের শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি এনামুল হক, সাধারণ সম্পাদক এইচ এম মোক্তার হোসেন, সদর উপজেলা শাখার সভাপতি খলিলুর রহমান হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক, স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইনচার্জ আব্দুর রব মিয়া প্রমূখ।

 

 

তাদের দাবি, নিয়োগবিধি সংশোধনসহ ক্রমানুসারে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের বেতন গ্রেড ১৬ থেকে যথাক্রমে ১১, ১২ ও ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করতে হবে।

 

 

দেশের ২৬ হাজার স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে ডাকা কর্মবিরতির ফলে সারাদেশে এক লাখ ২০ হাজার অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে প্রতিদিন ২০ হাজার মা ও শিশু টিকা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হবেন বলেও জানান আন্দোলনকারী স্বাস্থ্য সহকারীরা। দাবি বাস্তবায়ন না হলে আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন কার্যক্রম থেকেও স্বাস্থ্য সহকারীরা বিরত থাকবেন বলে কর্মসূচিতে ঘোষণা দেয়া হয়।

 

 

বাংলাদেশ হেলথ এসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশনের শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি এনামুল হক ও সাধারণ সম্পাদক এইচ এম মোক্তার হোসেন জানান, ১৯৯৮ সালে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দেন এবং ২০১৮ সালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ঘোষণা দেন ও ২০২০ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী বর্তমান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক লিখিতভাবে প্রতিস্তুতি দেন নিয়োগ বিধিসহ বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবি পূরণ করবেন। কিন্তু আজও পর্যন্ত সেই দাবিগুলো পূরণ হয়নি। তাই তাদের কর্মবিরতি চালিয়ে যাবেন। তারা চান বাংলাদেশ ডিজিটাল। তারাও ডিজিটাল হবো।


error: Content is protected !!