ঢাকা, রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রেলপথের আখাউড়া—লাকসাম ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন বৃহস্পতিবার উদ্বোধন

আখাউড়া , ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :
পূর্বাঞ্চলের ঢাকা—চট্টগ্রাম রেলপথের আখাউড়া—লাকসাম ৭২ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হতে যাচ্ছে ২০ জুলাই ২০২৩ বৃহস্পতিবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়্যালি ভাবে রেলপথের উদ্বোধন করবেন।

 

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায় ২০১৪ সালের জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল। ২০২০ সালের জুনে কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারি এবং প্রকল্প এলাকার কসবা ও সালদা নদী অংশে প্রতিবেশী দেশের (ভারত) আপত্তিতে নির্মাণ কাজ যথা সময়ে শেষ করতে পারেনি।

 

ভারত—বাংলাদেশ সীমান্তের শূন্যরেখার ১৫০ গজের ভেতর কাজ হচ্ছে, এমন অজুহাতে বিএসএফ বাধা দিয়েছিল। আড়াই বছর বন্ধ থাকার পর চলতি বছরের মার্চে আবার কাজ শুরু হয় এবং দ্রুতই সেটি শেষ করা হয়। তা ছাড়া এই প্রকল্পে সাতজন প্রকল্প পরিচালক পরিবর্তন করা হয়েছিল। আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত ৭২ কিলোমিটার অংশে আগে একটি রেললাইন ছিল। এখন তা দুই লেন করা হয়েছে।

 

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, এর মধ্য দিয়ে ঢাকা—চট্টগ্রাম রেলপথে ট্রেনের যাতায়াত সময় পৌনে এক ঘণ্টা থেকে এক ঘণ্টা কমবে। এ লাইনে এক সময় শুধু মিটার গেজ ট্রেন চলতে পারত। তবে দুই লেন চালু হওয়ার পর থেকে সেখানে মিটার গেজের পাশাপাশি ব্রডগেজ ট্রেনও চলতে পারবে।

 

আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইন নির্মাণ এবং বিদ্যমান রেললাইনকে ডুয়েলগেজ রূপান্তর’ প্রকল্পে খরচ হয়েছে ৬ হাজার ৫০৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে এডিবি ঋণ দিচ্ছে ৪ হাজার ১১৮ কোটি ১৪ লাখ টাকা এবং ইউরোপিয়ান ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (ইআইবি) দিচ্ছে এক হাজার ৩৫৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। বাকি ১ হাজার ২৬ কোটি ৬৬ লাখ টাকা সরকারি তহবিল থেকে দেয়া হচ্ছে। এই প্রকল্পের কাজ শেষ করতে প্রায় সাত বছর সময় লেগেছে। নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করতে না পারায় প্রকল্পের মেয়াদ দু’বার বাড়ানো হয়েছিল।তবে দুই দফা মেয়াদ বাড়লেও প্রকল্প ব্যয় কমছে।

 

সংশোধিত ডিপিপিতে (আরডিপিপি) প্রকল্প ব্যয় ৫ হাজার ৫৮৩ কোটি টাকা। খরচ ৯২১ কোটি টাকা কমতে যাচ্ছে।

 

এ বিষয়ে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন সহকারি নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল্লাহ সাংবাদিকদেরকে জানান, আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত ৭২ কিলোমিটার ডুয়েল গেজ ডাবল লাইন নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন বলে কথা রয়েছে।


error: Content is protected !!