ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

খাগড়াছড়ির রামগড়ে দাড়ি নিয়ে কটাক্ষ ও লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে স্মারক লিপি প্রদান

কওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ কর্তৃক রামগড় উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার মাধ্যমে স্মারকলিপি তুলে দেন

স্টাফ রিপোর্টার,খাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ির রামগড়ে পাহাড়ঞ্চল কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান খতিব ও ইমাম মাওলানা এমদাদুর রহমান কে কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এস এম ফয়সাল কর্তৃক লাঞ্চিত এবং দাঁড়ি নিয়ে কটাক্ষ করার প্রতিবাদে রামগড় উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছেন খাগড়াছড়ি কওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ।

আজ রবিবার(৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় খাগড়াছড়ি কওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ রামগড় উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সহকারি কমিশনার (ভূমি) উম্মে হাবিবা মজুমদার এর মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের নিকট এই প্রতিবাদী স্মারকলিপি তুলে দেন।

ভুক্তভোগী মাওলানা এমদাদুর রহমান জানান, গত বৃহস্পতিবার (২সেপ্টেম্বর) কেন্দ্রে কর্মরত শ্রমিক মো: মুজিবুর রহমান স্ট্রোক করে মারা যান। তিনি দীর্ঘ দিন কেন্দ্রে কর্মরত থাকায় সামাজিকভাবে তিনি পরিচিত। তাই মানবিক কারণে তার মৃত্যুর সংবাদ মসজিদের মাইকে প্রচার করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এস এম ফয়সাল তাকে গাঁয়ে হাত তোলেন এবং দাড়ি নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন ” দাড়ি রাখছে শয়তানের মত দেখা যায় ” এই কথা বলে তাকে আরো অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে এস এম ফয়সালের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি লাঞ্চিত করার বিষয়টি স্বীকার করেন বলেন বিনা অনুমতিতে মসজিদের মাইকে মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশ করা যায় না। দাড়ি নিয়ে কটাক্ষ করার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

এই দিকে খাগড়াছড়ি কওমী মাদ্রাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। এই ঘটনার তদন্ত করে প্রধার বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তার শাস্তি এবং অপসারন দাবি করেন। অন্যথায় পরিষদের পক্ষ থেকে মানব বন্ধন এবং বৃহত্তর কর্মসূচির ডাক দেয়া হবে বলে তারা জানায়।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিউটের মহাপরিচালক ড. মো: নাজিরুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে তিনি অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্ত কমিটি গঠন করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, এস এম ফয়সালের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। সে সমস্ত অভিযোগের ভিত্তিতেও তদন্ত চলামন রয়েছে। তদন্তের প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।


error: Content is protected !!