ঢাকা, রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘অযোগ্য’ টিমকে সারপ্রাইজ দিলেন দেব-রুক্মিণী

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় পরিচালিত ‘অযোগ্য’  ছবি মুক্তি পেয়েছে। আর এতে অভিনয় করেছেন প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটি। সম্প্রতি দক্ষিণ কলকাতার এক শপিং মলে ‘অযোগ্য’র স্পেশাল স্ক্রিনিং হচ্ছিল। প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির পাশাপাশি তাদের সঙ্গে সেখানে ছিলেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় ও তার ছেলে উজান। 

এদিক হঠাৎ সেখানে আসেন দেব-রুক্মিণী। দেবকে দেখা মাত্রই উঠে এসে আলিঙ্গন করেন প্রসেনজিৎ। রুক্মিণীকে দেখে কাছে ডেকে নেন ঋতুপর্ণা। এ যেন তারকাদের রিউনিয়ন।‘মাস্টার মশাই’ বলেই কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়কে জড়িয়ে ধরেন রুক্মিণী। তারপর প্রসেনজিতকে অভিবাদন জানিয়ে উজানের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করেন ।

‘অযোগ্য’র শোয়ের কথা জানতে চান দেব। প্রসেনজিৎ জানান, তা প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। আসলে দেব-রুক্মিণী শপিং মলে এসেছিলেন ‘বুমেরাং’ ছবি দেখতে। এরমাঝেই ‘অযোগ্য’ টিমের সঙ্গে খোশ গল্পে মেতে উঠেন তারা।

গত শুক্রবার সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘অযোগ্য’ ও ‘বুমেরাং’। দুই ছবি দুই ধরনের। ‘অযোগ্য’ ঋতুপর্ণা ও প্রসেনজিৎ জুটির পঞ্চাশতম ছবি, তাও আবার কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের পরিচালনায়। ছবিতে শিলাজিৎও রয়েছে। তিনজনকে সম্পর্কের সুতোয় বেঁধেছেন পরিচালক।

অন্যদিকে, ‘বুমেরাং’ এক অ্যান্ড্রো-হিউমানোইড রোবটের বিচিত্র কর্মকাণ্ড। যা দেখে হেসে উঠবেন দর্শকরা। সৌভিক কুণ্ডুর পরিচালনায় তৈরি এই সিনেমায় জিতের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন রুক্মিণী মৈত্র।

উল্লেখ্য, নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝি প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির সফর শুরু হয়। প্রথম ছবিই ছিল সুপারহিট। তারপর একে একে ‘মায়ার বাঁধন’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘স্বামীর ঘর’, ‘মনের মানুষ’-এর মতো সিনেমা দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। তবে ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’ সিনেমার মুক্তির পর দীর্ঘসময় একসঙ্গে কাজ করেননি তারা। কিন্তু দুজনের জনপ্রিয়তায় বিন্দুমাত্র ভাটা পড়েনি। এর প্রমাণ ছিল নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘প্রাক্তন’ সিনেমা।

২০১৬ সালে মুক্তি পায় ‘প্রাক্তন’। এরপর আবার দীর্ঘ বিরতি। এই জুটিকে নিয়েই আবার কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় তৈরি করেছিলেন ‘দৃষ্টিকোণ’। আলাদা গল্প, আলাদা চরিত্র। আবারও এই জুটি ফিরছে কৌশিকের ছবিতে।


error: Content is protected !!