ঢাকা, শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ঢাকা, শুক্রবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Notice: Use of undefined constant php - assumed 'php' in /home/bhorerso/public_html/wp-content/themes/newsportal/lib/part/top-part.php on line 49

বৃক্ষ ও শিল্পের অপূর্ব সমন্বয়

হঠাৎ কেউ তাকালে থমকে দাঁড়াবেন। বনে রবীন্দ্রনাথ, বাঘ, মডেলসহ বিভিন্ন খ্যাতনামারা দাঁড়িয়ে আছেন পাশাপাশি! তাও আবার গাছের ভেতর! এমন চিত্রকর্ম দেখা যায় প্রকৃতিকন্যা খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে।

প্রকৃতি ও জীবনের মেলবন্ধনের নাম জাবি ক্যাম্পাস। ঘন গাছপালার আচ্ছাদন ক্যাম্পাসের পরিবেশকে করেছে আরও সৌন্দর্যমণ্ডিত। যে সৌন্দর্য হাতছানি দিয়ে ডাকছে সবাইকে। এমনই চোখজুড়ানো গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে বিভিন্ন আঁকা শিল্প।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সাক্ষী পরিশ্রান্ত গাছগুলো হারিয়েছে তাদের চিরচেনা সেই রূপ ও সত্তা। অর্ধমৃত গাছগুলো নতুনরূপে সাজবে বলে প্রহর গুণছিল।  প্রকৃতি ও জীবনের মেলবন্ধন ঘটাতে তাই রঙ-তুলি হাতে বেরিয়ে পড়েছেন একজন চিত্রশিল্পী। যার দু’চোখজুড়ে হাজারো কল্পনা আর ইচ্ছাশক্তি। লোকজ নকশা আর বাংলা সাহিত্যের আদলে রাঙাতে শুরু করেছেন ক্যাম্পাসের প্রাণহীন নিস্তদ্ধ গাছগুলো।

প্রকৃতি, মানব ও প্রাণিকূলের নিরন্তন সম্পর্ককে রঙ-তুলির আঁচড়ে উপস্থাপন করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী সোহাগ কুমার মিশ্র। ক্যাম্পাসের স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সামনের গাছে জায়গা করে নিয়েছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাহারি চিত্রকর্ম। বাংলা সাহিত্য, সংস্কৃতি ও প্রকৃতির মধ্যে তার যে গভীর সম্পর্ক, সেই সম্পর্ককে নবরূপে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে চিত্রকর্মের মধ্যে দিয়ে।

এছাড়াও, পুরাতন প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন লেকের ধারের দুইটি গাছে জায়গা করে নিয়েছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার ও উড়ন্ত অপ্সরা নামের মনোমুগ্ধকর দুইটি চিত্রকর্ম। দেখে মনে হবে জীবন্ত এক বাঘ তার শিকারের জন্য অপেক্ষমাণ। বাঘ বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করে। তাই বাঙালি জাতির কাছে বাঘের রয়েছে আলাদা গুরুত্ব। আপাত দৃষ্টিতে হিংস্র হলেও তা আমাদের প্রতিনিধিত্ব করে। অসাধারণ এক ক্যানভাসে সেই চিত্রটিই ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

লাল-সবুজে আবৃত উড়ন্ত অপ্সরা চোখে পড়ার মতো। মুক্ত মনে আপন কল্পনায় উড়তে চাওয়া এক তরুণীর চিত্রকর্মও রয়েছে সেখানে। এটি স্বাধীনভাবে কল্পনা করতে শেখার বাস্তব এক দৃষ্টান্ত।

ক্যাম্পাসের মধ্যে চলার পথে চোখে পড়বে দৃশ্যমান এসব চিত্রকর্ম। পথচারী শিক্ষার্থীদের দূর থেকেই কাছে টানে এসব চিত্রকর্ম। ক্যাম্পাসে এমন চিত্রকর্ম অঙ্কন নতুন নয়। সাংস্কৃতিক রাজধানী খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের রন্ধ্রে রন্ধ্রে সংস্কৃতি ও শৈল্পিক ভাবনা জড়িয়ে আছে। যে শৈল্পিক ভাবনা তাদের প্রকৃতির বুকে নন্দনতত্ত্ব রচনা করতে অনুপ্রাণিত করে।

ব্যতিক্রমী এই উদ্যোগ সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ৪৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সোহাগ কুমার মিশ্র বলেন, আমাদের ক্যাম্পাসের সবুজ গাছগুলোতে কিছু করার আগ্রহ ছিল। আর সেই আগ্রহ থেকেই এগুলো অঙ্কন করেছি। তাছাড়া গাছের কোটরে আঁকা চিত্রকর্মগুলো বাগানের সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে তুলবে।

লেখক: শিক্ষার্থী, সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।


error: Content is protected !!